মেইন ম্যেনু

বিপিএল-এ তারকাদের পছন্দের দল

বিপিএল উন্মাদনায় ভাসছে সারাদেশ। নিজ নিজ পছন্দের দলকে সমর্থন জানাতে প্রিয়দলের জার্সি, প্লাকার্ড নিয়ে স্টোডিয়ামে হাজির হচ্ছেন হাজারো দর্শক। আবার অনেকে বাসায় বসেই উপোভোগ করছেন প্রিয় দলের খেলা।

বিপিএলের মৌসুমে ঢাকাই চলচ্চিত্রের তারকারাও বেছে নিয়েছেন তাদের পছন্দের দলকে। ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় তারকার পছন্দের বিপিএল দল নিয়ে পাঠকদের জন্য এ প্রতিবেদন।

‘বাংলাদেশের খেলোয়াড় যখন ভালো খেলে তখনই ভালো লাগে’

সোহেল রানা : ক্রিকেট খেলা আমি নিয়মিত দেখি। এবারও বিপিএল আমি পরিবারের সবার সঙ্গে বাসায় টেলিভিশনে উপভোগ করছি। এবারে ছয়টা দলেই পছন্দের খেলোয়াড় রয়েছে। সে হিসেবে বলা যায়, যে দল ভালো করবে সেই দলেরই সাপোর্টার আমি। তবে নির্দিষ্ট করে বলতে হলে বলবো, আমি বরিশালের ছেলে তাই বিপিএলে বরিশালকে সাপোর্ট করছি। সর্বপরি বলবো প্রত্যেকটা খেলায় যখন দেখি বাংলাদেশের কোনো খেলোয়ার ভালো খেলেছে তখনই ভালো লাগে। সেটা যে দলের হোক।

‘পছন্দের দলের মধ্যে ভেজাল আছে’

মিশা সওদাগর : আমি সুযোগ পেলেই খেলা দেখি। বিপিএল খেলাটা খুব আগ্রহ সহকারে দেখি। এবারে পছন্দের দলের মধ্যে একটু ভেজাল আছে। আমি ঢাকার ছেলে, সে হিসেবে ঢাকা ডায়নামাইটস তো আছেই। ওদিকে আমার পছন্দের খেলোয়ার মুশফিক সিলেটে আছে। তামিমকে ভালোলাগে, তাই আমি তো বিপদে পরে যাই। মুশফিকের দল জিতছে আমার যে কি আনন্দ লাগছে আমি ভাষায় প্রকাশ করতে পারবো না। আমি ওর জন্য দোয়া করা আরম্ভ করে দিয়েছি। মুশফিক, মাশরাফি বিন মর্তুজা এত ভালো সব খেলোয়ার, কাকে রেখে কাকে সাপোর্ট করবো। আমি সিন্ধান্ত নিয়েছি অরজিনাল ঢাকাইয়া পোলা হিসেবে ঢাকাকে সাপোর্ট অবশ্যই আছে। আর যেহেতু আমাদের দেশেরই সবগুলো দল অতএব যারাই ভালো খেলে যাবে তাদেরই সাপোর্টার আমি। এছাড়া মাহমুদ্দুল্লাহ, নাসিরও আমার পছন্দের। সবচেয়ে পছন্দ মুশফিক।

‘ঢাকা জিতলে ভালো লাগবে বেশি’

অমিত হাসান : শুটিংয়ের ব্যস্ততার কারণে খেলা তেমন দেখা হয় না। তারপরও খেলার খোঁজখবর রাখার চেষ্টা করি। যেহেতু আমি ঢাকা বিভাগের তাই বিপিএলে ঢাকার সাপোর্টার আমি। ঢাকা জিতলে ভালো লাগবে বেশি।

‘আমি বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের সাপোর্টার’

আমিন খান : বিপিএলের প্রতিটি খেলাই কিছুটা হলেও দেখা হয়। বিপিএল নিয়ে যেরকম আশা করছিলাম এ বছর কিন্তু সে ধরনের আকর্ষণ নেই। এজন্য এখনও বলতে পারছি না কোন দলের সাপোর্ট করবো। খেলাগুলো কেমন জানি গা ছাড়া গা ছাড়া ভাব মনে হচ্ছে। আমি বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের সাপোর্টার।

‘অবশ্যই কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া দলের সাপোর্টার’

অনন্ত জলিল : এবারে বিপিএলে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া দলের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর আমি ও বর্ষা। সে হিসেবে অবশ্যই কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া দলের সাপোর্টার।

‘শ্বশুর বাড়ীর এলাকার দলকে সাপোর্ট করছি’

রেসি : বিপিএল খেলাটা সব সময় আগ্রহ নিয়ে দেখতে বসি। এবারের খেলাগুলোও বাসায় টিভিতে দেখছি। বিপিএলের দলগুলোর মধ্যে শ্বশুর বাড়ীর এলাকার দলকে সাপোর্ট করছি। মানে আমার শ্বশুর বাড়ি চট্টগ্রাম, তাই চিটাগং ভাইকিংস– এর সাপোর্ট করছি।

‘সাকিব আল হাসান আমার পছন্দের খেলোয়াড়’

ইমন : খেলা তেমন দেখা হয়না। তারপরও বিপিএল খেলাটা দেখা হয়। এবারের বিপিএলে রংপুর রাইডার্স এর সাপোর্ট করছি। সাকিব আল হাসান আমার পছন্দের খেলোয়াড়।

‘দুটি দলের সাপোর্ট করছি’

ববি হক : দুটি সিনেমার শুটিং করতে এখন মাল্টায় আছি। শুটিং নিয়েই বেশি ব্যস্ত থাকতে হচ্ছে। তারপরও খেলার খবর রাখছি। এবারে বিপিএল খেলায় দুটি দলের সাপোর্ট করছি। ঢাকা ডায়নামাইটস ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স।

‘ক্রিকেট খেলা আমি বরাবরই পছন্দ করি’

সাইমন সাদিক : বিপিএল খেলা আমি মাঠে গিয়েই দেখার চেষ্টা করি। এবারের কয়েকটা খেলাও ইতিমধ্যে আমি মাঠে গিয়ে দেখেছি। বাকি খেলাগুলোও দেখার চেষ্টা করবো। এছাড়া বাসায় থাকলে টিভিতে ও গাড়িতে থাকলে রেডিওতে শুনি। ক্রিকেট খেলা আমি বরাবরই পছন্দ করি। এবারের বিপিএলে আমি ঢাকা ডায়নামাইটসের সাপোর্টার। এখন পর্যন্ত ঢাকাই ভালো করছে, আশা করছি সামনের দিকেও ভালো করবে।

‘বরিশাল বুলস এর সাপোর্ট করছি’

অহনা : শুটিংয়ের ব্যস্ততার কারণে খেলাটা তেমন উপভোগ করতে পারছিনা। তারপরও খেলার খবরটা সবসমই রাখি। বিশেষ করে বরিশালের খেলা হলে পুরো খেলা না দেখতে পারলেও একটু হলেও দেখি। এবারে আমি বরিশাল বুলস এর সাপোর্ট করছি।

‘চট্টগ্রামের সাপোর্ট করছি’

কায়েস আরজু : বিপিএল-এর সব খেলাগুলো আমি দেখছি। আমি চট্টগ্রামের ছেলে তাই চট্টগ্রামের সাপোর্ট করছি।