মেইন ম্যেনু

বিবিসির সাংবাদিক মাসুদ খান এখন হাসিনার প্রাণের জন্য হুমকি!

জীব ওয়াজেদ জয়ের সাথে কথিত মোসাদ এজেন্ট মেন্দি সাফাদীর বৈঠকের খবর বিবিসি বাংলা প্রচার করায় সংবাদ মাধ্যমটির উপর কিছুটা গোস্বা হয়েছেন আওয়ামী লীগ ও তাঁর দলীয় ক্যাডাররা । যদিও বিবিসি বাংলা বহুকাল থেকেই আওয়ামী ঘেঁষা হিসেবে সুপরিচিত। কক্ট্রর আওয়ামীপন্থি সোশাল মিডিয়া এক্টিভিষ্ট ও সিলেট শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা বর্তমানে লন্ডন প্রবাসী সুশান্ত দাস গুপ্ত মনে করেন জয়-সাফাদী নিউজ প্রচারের পিছনে বিবিসির সাংবাদিক মাসুদ হাসান খান দায়ী ।

964691

ওদিকে শেখ হাসিনার বিদেশ সফরের সময় মাসুদ খান তাঁর সাথে সেলফিও তুলেছিলেন ( উপরের ছবি) । সুশান্তের দাবী, এমন ব্যক্তি নেত্রীর এতো কাছে ভিড়তে পারলেন কিভাবে? শেখ হাসিনার সাথে বিবিসি বাংলার সম্পাদক সাবির মোস্তফাসহ কয়েকজন সেলফির ছবি শেয়ার করে সুশান্ত বুঝাতে চেয়েছেন, এমন ‘কাছের লোক’ হয়েও তারা আত্নঘাতি কাজটি করলো কেমনে?

পাঠকদের জন্য সুশান্ত দাস গুপ্তের স্ট্যাটাসটি তুলে ধরা হলো, বিবিসি বাংলার লন্ডন প্রতিনিধি মাসুদ হাসান খান। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সেলফি তুলেছেন। বোঝাই যাচ্ছে যে, তিনি ভরসার স্থান করে নিয়েছিলেন বলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এতো কাছে মোবাইল নিয়ে গিয়ে সেলফি তুলতে পেরেছিলেন। সেই তিনিই আবার মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়ের সাথে মেন্দি সাফাদির তথাকথিত মিটিং এর ভুয়া রিপোর্ট করেন।

এখানে মনে প্রশ্ন আসে, কার রেফারেন্সে মাসুদ হাসান খান মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এতো কাছে যেতে পেরেছে? এদের মতো যে কেউ যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্য প্রাণনাশের হুমকি হয়ে দাঁড়াবে না, এর নিশ্চয়তা কে দেবে? তাহলে যার রেফারেন্সে এমন লোক আমাদের নেত্রীর কাছে যেতে পেরেছে, সে অবশ্যই আওয়ামী লীগের জন্য নিরাপদ নয়।

এটি নিশ্চিত হওয়া গেছে যে, মাসুদ হাসান খানই এই ভুয়া রিপোর্ট করেছেন এবং বিবিসি বাংলায় ছাপিয়েছেন।