মেইন ম্যেনু

বিমানটির কেউ বেঁচে নেই

ইন্দোনেশিয়ার ট্রাইগানা এয়ারের বিধ্বস্ত বিমানের কেউ বেঁচে নেই। ৫৪ আরোহী ছিল বিমানটিতে। তাদের সবার লাশ উদ্ধার করেছে ইন্দোনেশিয়ার উদ্ধারকারী দল।

বিবিসি অনলাইনের এক খবরে মঙ্গলবার এ তথ্য জানানো হয়েছে।

রোববার ইন্দোনেশিয়ার পাপুয়া প্রদেশে পর্বত এলাকায় ঘন বনাঞ্চলে ট্রাইগানা এয়ারের যাত্রীবাহী বিমানটি বিধ্বস্ত হয়। দুর্গম এলাকায় উদ্ধারকারীদের পৌঁছাতে প্রায় তিন দিন সময় লেগে গেছে।

উদ্ধারকারী দলের প্রধান জানিয়েছেন, তার দলের সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন। বিমানটি গুঁড়িয়ে গেছে এবং বড় অংশ পুড়ে গেছে। বিমানটির ব্লাক বক্স উদ্ধার করা হয়েছে।
বিমানের ৫৪ আরোহীর মধ্যে পাঁচজন শিশু, পাঁচজন ক্রু এবং বাকি ৪৪ জন প্রাপ্তবয়স্ক লোক।

বিমানটিতে নগদ প্রায় ৫ লাখ ডলার ছিল। পাপুয়া প্রদেশের গরিবদের মধ্যে তা বিরতরণ করার কথা ছিল। তবে এই অর্থ উদ্ধারকারীরা খুঁজে পায়নি।

এদিকে পুলিশ, সেনা ও বেসামরিক কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে গঠিত ১০০ সদস্যের একটি উদ্ধারকারী দল মঙ্গলবার সকালে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে।

উদ্ধারকারী দলের প্রধান ব্যামবাং সোলিসতিয়ো জানিয়েছেন, বিমানটি সম্পূর্ণ ধ্বংস হয়ে গেছে এবং আরোহীদের শরীর এমনভাবে পুড়ে গেছে যে, তাদের শনাক্ত করা খুবই কঠিন হয়ে পড়েছে।

বৈরী আবহাওয়ায় মৃতদেহগুলো স্থানান্তর করা কঠিন হচ্ছে। তারপরও লাশগুলো প্রাদেশিক রাজধানীতে নেওয়া হবে শনাক্তের জন্য।

কর্মকর্তারা নিশ্চিত করেছেন, বিমানের ব্লাক বক্স পাওয়া গেছে। ফলে কেন বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছিল, তা ব্লাক বক্সের তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে হয়তো জানা যাবে। ফ্লাইটসম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য সংরক্ষিত থাকে ব্লাক বক্সে।