মেইন ম্যেনু

বিমানে হেডফোনের ব্যাটারি বিস্ফোরণে ঝলসে গেল তরুণীর মুখ

অস্ট্রেলিয়াগামী বিমানের এক নারী যাত্রীর হেডফোনের ব্যাটারি বিস্ফোরিত হয়ে ঝলসে গেল তার মুখ ও হাত।

এ ঘটনা ১৯ ফেব্রুয়ারির। বেইজিং থেকে মেলবোর্নে যাচ্ছিলেন ওই নারী। বিমানে নিজের হেডফোনে গান শুনছিলেন তিনি। হেডফোনটি ব্যাটারিচালিত। হঠাৎ সেটি বিস্ফোরিত হয় এবং বিমানে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ততক্ষণে ওই নারীর মুখ ঝলসে যায় এবং তার হাতও ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

অস্ট্রেলিয়ার পরিবহন নিরাপত্তা ব্যুরো ঘটনাটি তদন্ত করছে। তাদের কাছে ওই নারী যাত্রী জানিয়েছেন, ‘(ঘটনার পরপর) আমি নড়েচড়ে বসার সময় বুঝতে পারি আমার মুখ পুড়ে যাচ্ছে।’

হেডফোনটি তার ঘাড়ের সঙ্গে জড়ানো ছিল। পুড়তে দেখে সেটি ছুড়ে বিমানের মেঝেতে ফেলে দেন তিনি। তখনও পুড়ছিল হেডফোনটি। বিমানের ক্রু এসে পানি দেন তাতে। ততক্ষণে হেডফোনের তার পুড়ে গলে গেছে।

ছবিতে দেখা যাচ্ছে, ওই নারী যাত্রীর মুখ পুড়ে গেছে। এ ছাড়া যাত্রীরা জানান, তারা প্লাস্টিক ও চুল পোড়ার গন্ধ পেয়েছিলেন।

টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইনের এই খবরে বিমান কোম্পানি ও যাত্রীর নাম উল্লেখ করা হয়নি।

বিমানে ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইসের দুর্ঘটনা এটিই প্রথম নয়। গত বছর লস অ্যাঞ্জেলেস থেকে নিউ ইয়র্কগামী একটি কান্তাস ফ্লাইটে এক যাত্রীর ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইস বিস্ফোরিত হয়। যেসব ব্যাটারিতে লিথিয়াম থাকে, সেগুলোও বিস্ফোরণের ঝুঁকি বাড়ায়।

গত বছর বেশির ভাগ বিমান কোম্পানি স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট-৭ নিয়ে বিমান ভ্রমণ নিষিদ্ধ করে। কারণ এর ব্যাটারি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে গিয়েছিল তার আগে।