মেইন ম্যেনু

বিমান হামলায় আইএস নেতা নিহত

মার্কিন বিমান হামলায় তথাকথিত ইসলামিক স্টেটের সবচেয়ে সিনিয়র নেতা ওয়াইল হাসান সালমান আল ফায়াদ নিহত হয়েছে।

কয়েকদিন আগে সিরিয়ায় এই বিমান হামলা চালানো হয় বলে জানায় বিবিসি।

ওয়াইল হাসান সালমান আল ফায়াদ ‘ড. ওয়াইল’ নামেও পরিচিত ছিলেন। আইএসের তথ্যমন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেন তিনি। এ ছাড়া তিনি দেখভাল করতেন জঙ্গি সংগঠনটির প্রপাগাণ্ডা ভিডিও নির্মাণের দিকটিও। এই ভিডিওগুলোতে দেখানো হতো জবাই করার দৃশ্য।

পেন্টাগন জানায়, বিমান হামলা চালানো হয় রাকার কাছে ৭ ডিসেম্বর। তিনি ছিলেন আইএস ‘স্ট্রাটেজিস্ট’ আবু মুহাম্মেদ আল আদনানির ঘনিষ্ঠ সহযোগী। বিমান হামলায় গতমাসে তিনিও নিহত হন।

পেন্টাগনের প্রেস সেক্রেটারি পিটার কুক এক বিবৃতিতে বলেন, আইএসআইএলের সিনিয়র নেতাদের মৃত্যু ঘটায় জঙ্গি সংগঠনটির দখলে নেওয়া ভূখণ্ড ধরে রাখার সামর্থ্য, রণকৌশল তৈরির পরিকল্পনা, অর্থ যোগান দেওয়ার পাশাপাশি ও সরাসরি হামলা চালানোর সামর্থ্য অনেকাংশে কমে গেল।

এ সপ্তাহের প্রথমদিকে আইএসের প্রধান প্রপাগনিস্ট আবু মুহাম্মেদ আল-আদনানি গতমাসে এক বিমান হামলায় নিহত হন। হামলাটি চালানো হয়েছিল সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে। তার মাথার দাম ঘোষণা করা হয়েছিল পাঁচ মিলিয়ন ডলার।