মেইন ম্যেনু

বিরাট কোহলির জন্য বাজি ধরা মেয়ে এখন ১০০ কোটির মালিক

বয়স ২৮ বছর। এই বয়সের একটা মেয়ে আগেকার দিনে হলে বিয়ে-থা করে সংসারী। আর আজকালকার আধুনিকারা মোটামুটি প্রতিষ্ঠিত হয়ে সেটল করার বিষয়ে ভাবনা-চিন্তা করছেন। তবে, এই মেয়ের সেসবের চিন্তা করার কোনও সময়ই নেই অঞ্জনা রেড্ডির। ব্যবসায়ী পরিবারের এই কন্যা এখন ৬১ কোটি টাকার ব্যবসা সামলাচ্ছেন। এই আর্থিক বছরের শেষেই এই পরিমাণটা ১০০ কোটি ছাড়াবে। না, পারিবারিক নয়। এই গোটা ব্যবসাই তাঁর একা হাতে তৈরি।

ইউনিভার্সাল স্পোর্টসবিজ প্রাইভেট লিমিটেডের প্রতিষ্ঠাতা অঞ্জনা। জনপ্রিয় ব্র্যান্ড Collectabillia, Imara, Wrogn – এসবই এই কোম্পানির নিজস্ব ব্র্যান্ড। ২০১১ সালে গ্র্যাজুয়েশন করার পর স্নাতকোত্তর পড়তে আমেরিকা চলে যান অঞ্জনা। পারিবারিক ব্যবসায় যোগ না দিয়ে তাঁর বরাবরের ইচ্ছে ছিল একজন সফল উদ্যোগ পতি হয়ে ওঠা। কলেজের ফাইনাল ইয়ারেই তিনি কালেক্টাবিলিয়া কোম্পানি তৈরি করেন।

অঞ্জনার পরিবার একসময় ডেকান চার্জার্সের মালিক ছিল। আর তিনি যেখানে পড়াশোনা করেন অর্থাত্‍‌ আমেরিকাতেও খেলাধুলো ব্র্যান্ড বিজনেসের অন্যতম মুখ। এই সবকিছু মিলিয়েই খেলাধুলোর সঙ্গে জড়িয়ে ব্যবসা করার চিন্তাভাবনা তাঁর মাথায় আসে। সচিন তেন্ডুলকর থেকে শুরু করে ইংলিশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগের খেলোয়াড়দের জন্য এজেন্সিগুলিকে ক্রীড়াসামগ্রী দেওয়া শুরু করেন অঞ্জনা। সেই শুরু। ২০১২-তে কালেক্টাবিলিয়ার বিনিয়োগকারীদের মধ্যে একজন ছিলেন সচিন।

তবে, সেই অধ্যায়টা খুব ভালো না যাওয়ায় তড়িঘড়ি সিদ্ধান্ত বদলান এই ব্যবসায়ী কন্যা। এরপরই তিনি বাজারে আনেন ইমারা ও Wrogn। ব্যবসা যখন টলমল, তখনই ভারতীয় ক্রিকেট স্টার বিরাট কোহলির উপর বাজি ধরার সাহস দেখান অঞ্জনা। এমন একটা সময়ে যখন বিরাট ইংল্যান্ড সিরিজে একটা কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিল। অনেকেই বলতে শুরু করেছিলেন বিরাটের খেলা শেষ। এই অবস্থায় একটু এদিক-ওদিক হলেই ব্যবসা লাটে উঠত অঞ্জনার। তবে, তিনি ভরসা রেখেছিলেন বিরাট ও তাঁর সিদ্ধান্তের উপর। ফলটা কী হয়েছে আজ সবাই জানে। ব্র্যান্ড Wrogn সাফল্যের শিখরে। Wrogn-এর ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর বিরাটও।-এই সময়



« (পূর্বের সংবাদ)