মেইন ম্যেনু

বিলের পানিতে ফেলে স্ত্রী হত্যা, স্বামীসহ আটক ৫

গাজীপুরে স্ত্রীকে মারধর করে বিলের পানিতে ফেলে হত্যা করেছে পাষন্ড স্বামী ও তার সহযোগীরা।

বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে পুলিশ গাজীপুর সিটি করপোরেশনের তিতারকুল এলাকার বিল থেকে লাশ উদ্বার করে। এ ঘটনায় পুলিশ পাঁচজনকে আটক করেছে।

নিহত গৃহবধূর নাম বিউটি আক্তার (২৮)। তিনি মানিকগঞ্জের ঘিওর থানার উত্তরতরা গ্রামের আব্দুল মজিদ আকন্দের মেয়ে এবং গাজীপুর সিটি কপোরেশনের জোলারপাড় গ্রামের আইনদ্দিনের ছেলে সেলিম মিয়ার স্ত্রী।

আটকৃতরা হলেন নিহতের স্বামী সেলিম মিয়া (২৮), গাজীপুর সিটি করপোরেশনের পশ্চিম জয়দেবপুর এলাকার আবুল খায়েরের ছেলে মামুন সিদ্দিকী (২৮), লক্ষীপুরা এলাকার কামাল উদ্দিনের ছেলে রুবেল (২৮), পূর্ব ভুরুলিয়া এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে মো. শাকিল (১৪) ও নারায়ণগঞ্জের ২নং ঢাকেশ্বরী এলাকার সোহরাব হোসেনের ছেলে লিটন মিয়া (৩০)।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, বিউটি আক্তারের স্বামী সেলিম মিয়া ও শাকিল স্থানীয় জয়দেবপুর বাজারের উৎসব বস্ত্রালয়ের কর্মচারী। মঙ্গলবার শাকিল তিতারকুল বাজার ঘাট থেকে একটি ইঞ্চিনচালিত নৌকা ভাড়া করে। ওই দিন বিকেলে সেলিম মিয়া তার স্ত্রী ও অন্য সহযোগীদের নিয়ে ওই নৌকায় করে ঘুরতে বের হয়। ফেরার পথে রাত ১১টার দিকে তিতারকুল বাজার ঘাটের অদূরে স্ত্রীকে মারধর করে বিলের পানিতে ফেলে দেয় সেলিম ও তার সহযোগীরা। এ সময় মাঝি শাহ আলম টের পেয়ে মোবাইল ফোনে বিষয়টি এলাকাবাসীকে জানান। পরে লোকজন এগিয়ে এসে ওই পাঁচজনকে ধরে জয়দেবপুর থানা পুলিশে সোপর্দ করে।

এদিকে রাত থেকেই ওই বিলে বিউটির মৃতদেহ খোঁজা শুরু হয়। এক পর্যায়ে বুধবার সকালে টঙ্গী থেকে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল এসে উদ্ধার কাজে যোগ দেয়। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে লাশ ভেসে উঠলে পুলিশ উদ্ধার করে।

জয়দেবপুর থানার এসআই আহাদুল ইসলাম জানান, লাশ উদ্ধার করে গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকা- বলে ধারণা করছেন তিনি।