মেইন ম্যেনু

বিশ্বকাপের নায়ক ক্রিকেট ছেড়ে এখন পুলিশ কর্মকর্তা

ভারতীয় ক্রিকেটার যোগিন্দার শর্মার কথা কি মনে আছে আপনাদের? যিনি কিনা ২৪ বছর পর ভারতকে বিশ্বকাপ এনে দেয়ার নায়ক ছিলেন।

২০০৭ সালের ওই বিশ্বকাপের ফাইনালটি ছিল পাকিস্তানের বিপক্ষে। ভারতের ১৫৭ রানের জবাবে মিসবাহ উল হকের ব্যাটে ভর করে শেষপর্যন্ত লড়াই টিকিয়ে রেখেছিল পাকিস্তান। শেষ ওভারে দরকার ছিল মাত্র ১৩ রান। দুই শিবিরই তখন চিন্তিত। উত্তপ্ত স্টেডিয়ামে পিন পতনের শব্দও নেই তখন।

হঠাৎ করে দেখা গেল এক অখ্যাত বোলারের হাতে বল তুলে দিলেন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। প্রথম বল করার পর ভারতের সমর্থকরা ক্ষিপ্তই হয়েছিল ধোনির উপর। কারণ প্রথম বলটিই উড়িয়ে দিয়ে ছক্কা হাঁকান মিসবাহ। পরের বলেই অবশ্য তুলে নিয়েছিলেন তার উইকেট। স্কুপ মারতে গিয়ে শ্রীশান্তের হাতে ক্যাচ দিয়েছিলেন মিসবাহ।

গৌতম গম্ভীর, ইরফান পাঠানরা দারুণ খেললেও শেষ ওভারে মিসবাহর উইকেট তুলে পাকিস্তানকে হারানোর মূলে ছিলেন যোগিন্দার শর্মাই। ফাইনালের সেই হিরো যোগিন্দার শর্মা আজ কোথায়, কী করেন জানেন?

হরিয়ানা পুলিশের ডেপুটি সুপারিন্টেন্ট (ডিএসপি) হিসেবে এখন কর্মরত যোগিন্দার শর্মা। বিশ্বকাপ জেতার পরই হরিয়ানা সরকার তাকে পুলিশের চাকরি দিয়েছিল। পদোন্নতি হতে হতে আজ তিনি ডিএসপি। ২০০৭ সালের ওই বিশ্বকাপের ফাইনালের পর আর টি২০ ম্যাচও খেলেননি। ক্ষোভ, অভিমান কিছুই ধরা পড়েনি তার মধ্যে। এখন ব্যাটসম্যান নন, বাঘা বাঘা গুণ্ডরা তার ভয়ে কাবু।

তবে ক্রিকেটকে এতো সহজে সরিয়ে দিতে পারেননি যোগিন্দার। ভারতীয় ক্রিকেটারদের সঙ্গে এখনো রয়েছে তার সুসম্পর্ক। এই তো সেদিন হরভজন সিংয়ের বিয়েতেও গিয়েছিলেন তিনি।