মেইন ম্যেনু

বিশ্বকাপ জয়ের পর যা বললেন সামি

স্বপ্নের ফাইনালে ইংল্যান্ডকে ৪ উইকেটে হারিয়ে দ্বিতীয় বারের মতো টি-টোয়েন্টির শিরোপা ঘরে তুললো ক্যারিবীয়রা। এ জয়ে উচ্ছসিত দলের অধিনায়ক সামি।

সামি বলেন, প্রথমত সৃষ্টিকর্তা ধন্যবাদ, কারণ তিনি ছাড়া কোনো কিছুই সম্ভব না। এ ম্যাচটি জিততে পেরে সত্যিই আমি খুব খুশি। অনেকদিন মনে রাখার মতো কিছু হলো। এর আগেও আমরা ১৫ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ জিতেছি, সবগুলোতে কেউ না কেউ দায়িত্বশীল অবদান রেখেছে। এ ম্যাচে ব্রাথওয়াইট অসাধারণ দায়িত্শীলতার পরিচয় দিয়েছে।

ব্রাথওয়াইট তার প্রথম বিশ্বকাপে পরপর ৪টি ছয়ের মার মেরে দলকে ২ বল হাতে রেখেই জয় এনে দিয়েছেন।

এ টুর্নামেন্ট শুরুর আগের অবস্থা সম্পর্কে বলতে গিয়ে স্যামি বলেন, টুর্নামেন্ট শুরুর আগে মানুষজন আমাদের নিয়ে দ্বিগ্ন ছিল। আমাদের অনেক ইস্যু ছিল। বোর্ড আমাদের সঙ্গে অসৌজন্যতা দেখিয়েছে, ইএসপিনের প্রতিবেদনে ধারাভাষ্যকার মার্ক নিকোলাস আমাদের মস্তিস্কবিহীন বলেছেন- সবকিছুই আমাদের মধ্যে ছিল।

সব খেলোয়াড় এবং সাপোর্টিং স্টাফদে ধন্যবাদ জানিয়ে স্যামি বলেন, এ ১৫ জনের সঙ্গে থাকতে পেরে আমি নিজেকে ধন্য মনে করছি। নিজেদের সেরাটুকু দিয়ে যারা এ সাফল্য ঘরে তুলেছে তাদের ধন্যবাদ দিতেই হবে। ব্যক্তিগতভাবে আমি কোচিং স্টাফদের ধন্যবাদ জানাই। বিশেষ করে কোচ পিলকে (সায়মন্স), যে কিনা অসাধারণভাবে তার দায়িত্ব পালন করেছন। অন্যান্য কোচিং স্টাফরাও তাদের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করেছন।

স্যামি আরও বলেন, এ জয়ের কৃতিত্ব পুরো দলের। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, এ জয়ের ক্যারিবীয় মানুষের জন্য উৎসর্গ করার। যে মানুষগুলো আমাদের সমর্থন জানিয়েছে, ই-মেইল এবং ফোন কলের মাধ্যমে।

এছাড়াও প্রধানমন্ত্রীর মিচেলের কাছ থেকেও ফোন কল পেয়েছি। সকালে প্রধানমন্ত্রী সবার জন্য অনুপ্রেরণার বার্তা পাঠিয়েছিলেন।

যদিও আমাদের ভবিষ্যত অনিশ্চিত তবুও এখন এ উদযাপনের সময়। কারণ আমরা একদিনের বিশ্বকাপ খেলতে পারবো না, তাই টে-টোয়েন্টির এ জয় ভালভাবে উদযাপন করতে চাই। এজন্য দল এবং কোচিং স্টাফদের আবারো ধন্যবাদ জানাতে চাই।