মেইন ম্যেনু

বিশ্বকে চমকে দিচ্ছে গাজার এই ১২ বছরের বালক

প্রিয় সুপারহিরো যা যা করে থাকে, বাস্তবে তা করতে গিয়ে মৃত্যুর মুখে তলিয়ে যায় অনেকেই! এই খবরটা কিন্তু সে সবের ভিড় থেকে অনেক হাত দূরে!

মৃত্যু নয়, বরং জীবন আর স্বাধীনতার গান গাইছে গাজার ‘স্পাইডারম্যান’! না কি তাকে স্পাইডারবয় বলাটাই উচিত হবে? বয়স যে মাত্র ১২!

এই কূটকচালির বাইরে গিয়েও একটা কথা স্বীকার করে নিতেই হয়- দুনিয়া তাকে দেখে চমকে এবং থমকে গিয়েছে এক সঙ্গে! এখানেই বাহবার ন্যায্য হকদার মোহাম্মদ-আল-শেখ। ‘আরবস গট ট্যালেন্ট’ নামের এক রিয়েলিটি শো প্রথম তার প্রতিভা তুলে ধরে দুনিয়ার সামনে।

মোহাম্মদ-আল-শেখের যাবতীয় কারিকুরি লুকিয়ে রয়েছে অ্যাক্রোবেটিকে। এই বয়সেই তার শারীরিক নমনীয়তা প্রশ্নাতীত। চোখের নিমেষে হাতদুটোকে পিছনে রেখে শরীর বেঁকিয়ে ফেলতে পারে সে। তার পর করে চলে তার যা মর্জি! হাওয়ায় ভেসে থাকা থেকে শুরু করে দুই হাতে ভর দিয়ে হাঁটা- সব কিছুই!

বিনিময়ে তার প্রাপ্য হয় অজস্র অভিনন্দন! নিজেই জানিয়েছে আল-শেখ, সারা দুনিয়া জুড়ে প্রচুর মানুষ লাইক এবং শেয়ার করে থাকেন তার অ্যাক্রোবেটিক কারনামা। আরবস গট ট্যালেন্ট-এ সারা দুনিয়া মিলিয়ে ১৪ মিলিয়ন মানুষ ভোট দিয়েছেন তাকে।

এত কিছুর পরেও কিন্তু একটা ক্ষোভ রয়ে গিয়েছে প্যালেস্তাইনের এই কিশোরের। সে গাজার বাইরে বেরোতে চায়। থাকতে চায় রাজনীতির কূটকচালির ঊর্ধ্বে। ঘুরে দেখতে চায় দুনিয়া। দুনিয়াকেও দেখাতে চায় তার কৃতিত্ব।

”আকাশটাই কেবল আমার সীমা হতে পারে। আর কোনও কিছু নিয়েই আমি ভাবতে চাই না”, জানিয়েছে মোহাম্মদ-আল-শেখ।