মেইন ম্যেনু

বিশ্বের আশ্চর্যজনক ওয়াটার পার্ক

২০ মিলিয়ন গ্যালনের অধিক পানি, ২০টি সাঁতারের এলাকা, বাচ্চাদের তিনটি পুলসহ মোট ১১টি পুল, জলের স্লাইড, উচ্চ তীব্রতার নদীপ্রপাত এবং দীর্ঘ মাইলের যাত্রা সম্পন্ন নদী বিশিষ্ট যাত্রা। সবচেয়ে আশ্চর্যজনক এই ওয়াটার পার্ক ক্যারিবিয়ানদের প্রধান আকর্ষণ। আটলান্টিস এর একুয়াভেঞ্চার দ্বীপে ১৪১ একর জমির উপর এই ওয়াটার পার্ক অবস্থিত। নদী ও পুলের মাঝে রাইডের মাধ্যমে এর বন্য পরিবেশ সম্পর্কে আপনি জানতে পারবেন।

এতে ছয় তলা বিশিষ্ট মায়া মন্দিরও রয়েছে। অলস নদীর যাত্রায় আপনার মন ও দেহ তৃপ্তি পাবে। সাদা বালির যে বিচসমূহ রয়েছে, তা আরও বেশি মনোমুগ্ধকর। জলজ প্রেমীদের মনে যত চাওয়া-পাওয়া রয়েছে, তা এখানে আসলে অবশ্যই পূরণ হবে বলে মনে করা হচ্ছে। খবর- নাসাওপেরাডাইস আইল্যান্ড।

ওয়াটার পার্কে বিনোদনের জন্য যেসব স্থান রয়েছে, তা হল-

top-of-power-tower-showing

১. পাওয়ার টাওয়ার:
একুয়াভেঞ্চারের পাওয়ার টাওয়ার ১২০ ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট। এর চারদিকে চারটি স্লাইড রয়েছে। আবিস নামের স্লাইডটি ৫০ ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট এবং এর পানি উল্লম্ব বরাবর আসে। আবিসের দৈর্ঘ্য ২০০ ফুট। অন্ধকারের মধ্য দিয়ে একটি অশুভ ” ড্রপ” দিয়ে শুরু হয় একটি একক বা ডবল ভিতরের টিউব যাত্রা। আপনি একটি বন্দরে বন্দরে যাতায়াতকারী জাহাজ এর মাধ্যমে চালিত হয়ে জলপ্রপাত এর উপর বেয়ে নিচে নামবেন। একটি গুহার ভিতর থেকে টিউবযাত্রা শুরু হয় এবং উপর থেকে নিচে এসে শেষ হয়।

11393275_66463

২. মায়া মন্দির:
মায়া মন্দিরে যাবার পূর্বে ৫টি স্লাইড পার করে যেতে হয়। সেখানে যাবার পূর্বে জঙ্গল ও গুহা রয়েছে। যেখানে শিশুরা সাফারি স্লাইড এর মজা নিতে পারেন। তারপর চ্যালেঞ্জিং বন্ধুদের জন্য দুই চ্যালেঞ্জার স্লাইড রয়েছে। তারপরে ৬০ ফুট গহীন একটি সুড়ঙ্গ রয়েছে। এখানে উচ্চ গতির একটি স্লাইড রয়েছে। এটি পাড় হবার পর মায়া মন্দির।

pp1

৩. অলস নদী এবং কারেন্ট:
এখানের নদীর ডিজাইন খুব সুন্দর করে করা। আপনার কখনই এখানে খারাপ বা বোরিং লাগবে না। একটি কোয়ার্টার মাইল লুপ কাছাকাছি আঁকাবাঁকা পথ হিসেবে পরিবারের সবাই এই ঝিম এবং নাটুকে অলস নদী উপভোগ করবে। একটি ক্রান্তীয় আড়াআড়ি ও ঘূর্ণায়মান তরঙ্গ বিশিষ্ট সিঁড়িনদীর কারনে আরও উপভোগ্য হয়ে উঠে।