মেইন ম্যেনু

বিশ্বের প্রথম নারী শান্তিরক্ষী ইউনিট বাংলাদেশের

বিশ্বের প্রথম নারী শান্তিরক্ষী ইউনিট হলো বাংলাদেশের। হাইতিতে শান্তিরক্ষা মিশনে মোতায়েন বাংলাদেশের ১৬০ নারী সদস্যের ইউনিটই হলো প্রথম নারী শান্তিরক্ষী ইউনিট। তবে তারা অনভিজ্ঞ ও অপ্রস্তুত বলে অভিযোগ উঠেছে। এ অবস্থায় তাদের নিয়ে তৈরি করা হয়েছে ‘জার্নি অব এ থাউজ্যান্ড মাইলস :পিস কিপারস’ নামে একটি প্রামাণ্যচিত্র। গীতা ও শারমিন ওবায়েদ চিনয় পরিচালিত ওই প্রামাণ্যচিত্রের প্রিমিয়ার শো গত সপ্তাহে কানাডার টরন্টো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে হয়ে গেছে। খবর নিউইয়র্ক টাইমসের।

এতে দেখানো হয়েছে, একজন নারীকে ব্যক্তিগত জীবনে এবং পেশাজীবী হিসেবে কীভাবে চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হতে হয়। শান্তিরক্ষী মিশনে কর্মরত এক নারী প্রামাণ্যচিত্রে বলেন, ‘নারী পুলিশ হিসেবে যখন মিশনের জন্য নির্বাচিত হলাম, তখন আমার স্বামী এর সম্পূর্ণ বিরোধী ছিলেন। আমি আমার সিদ্ধান্তে অটল থাকায় তিনি ক্ষুব্ধ হলেন এবং দেড় মাস আমার সঙ্গে কথা বলেননি।’

অন্য এক নারী বলেন, ‘বাংলাদেশি নারী হিসেবে আমরা আমাদের দেশের ধারণা অবশ্যই পাল্টাতে সক্ষম হবো। আমরা আশা করছি, আমাদের দেশের বালিকারা আরও অনেক দূর যাবে।’