মেইন ম্যেনু

বিশ্বের সর্ববৃহৎ পরিবারের কর্তার জন্মদিন

বিশ্বের সর্ববৃহৎ পরিবারের কর্তা জিওনা চানার আজ জন্মদিন। পরিবারের সদস্যরা ধুমধামের সঙ্গে এ দিনটি পালন করবে বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভি।

জিওনা চানার বাড়ি ভারতের মিজোরাম রাজ্যের সেরচিপ জেলার তিয়াংসুয়াম গ্রামে। তার মোট ৩৮ জন স্ত্রী ও ৮৯টি সন্তান-সন্ততি রয়েছে। তিনি প্রথম বিয়ের পিড়িতে বসেছিলেন ১৯৫৯ সালে। তখন তিনি ১৫ বছরের এক শিশু। এরপর একে একে আরো ৩৭ জন নারীকে বিয়ে করেন। এক বছরে ১০টি বিয়ে করার রেকর্ডও আছে জিওনা চানার। তিনি সবশেষ বিয়েটি করেছেন ২০০৪ সালে, ৬০ বছর বয়সে। বহু স্ত্রী থাকলেও তিনি কখনোই একই সময় একাধিক স্ত্রীর সঙ্গে সময় কাটান না।

স্ত্রী, ছেলে-মেয়ে ও নাতি নাতনিদের নিয়ে তার পরিবারের মোট সদস্য সংখ্যা ১৬২ জন। এদের নিয়ে তিনি চারতলা ‘চুয়ান থার রুন’ বা নিউ জেনারেশন নামের বাড়িটিতে বসবাস করেন। এত বড় হলেও চানার পরিবার সুশৃঙ্খল একটি বাহিনীর মতো পরিচালিত হচ্ছে। চানার প্রথম স্ত্রী জাথিয়াঙ্গির নির্দেশমতোই চলে বিশাল এ পরিবার। বাড়িঘর ধোয়া-মোছা, পোশাক-আশাক পরিষ্কার ও রান্নাবান্না করা—সবকিছুই ভাগ করে দেওয়া আছে। নিয়ম অনুযায়ী সবাই প্রতিদিনের কাজ শেষ করেন। ছোটখাটো একটা গ্রামের মতো হলেও বিশালাকায় এ পরিবারে কোনো ঝুট-ঝামেলা নেই।

বিশ্বের সবচাইতে বড় পরিবারের কর্তা জিওনা চানার আজ ৭২তম জন্মদিন। নেচে গেয়ে আনন্দ স্ফূর্তির মধ্য দিয়ে দিনটি পালন করবে তার পরিবার ও গোত্রের লোকজন। এ উপলক্ষে অন্য বহু গোত্রের লোকজনকেও ভোজের নিমন্ত্রণ দেয়া হয়েছে।

এ রকম একটা বিশাল পরিবারের কর্তা হতে পেরে ভীষণ খুশি জিওনা চানা। এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘নিজেকে ঈশ্বরের বিশেষ পুত্র বলে মনে হয়। তিনি অনেককে দেখাশোনার সুযোগ দিয়েছেন আমাকে। ৩৯ জন নারীর স্বামী হতে পেরে এবং পৃথিবীর সবচেয়ে বড় পরিবারের কর্তা হওয়ায় নিজেকে ভাগ্যবান বলে মনে হয়।’

আর জিওনা চানার পরিবারটিকে এক নজর স্বচক্ষে দেখার জন্যেই বহু পর্যটক মিজোরাম সফর করে থাকেন। বিশ্ব জুড়ে এতটাই জনপ্রিয় চানা ও তার পরিবারটি।