মেইন ম্যেনু

বিশ্বের সর্বাপেক্ষা ভুতুড়ে বন

হোইয়া বাছিউ বন (Hoia Baciu Forest) বিশ্বের সবচেয়ে ভৌতিক বন। এটি রোমানিয়া’র ২৫০ হেক্টর এলাকা জুড়ে অবস্থিত। এই বন সে দেশে “বারমুডা ট্রায়াঙ্গেল” হিসাবে পরিচিত। তীব্র অস্বাভাবিক কার্যকলাপ এবং ব্যাখ্যাতীত ঘটনা জন্য এই বনের খ্যাতি আছে। এক প্রতিবেদনের ফটোগ্রাফের ক্যামেরায় খালি চোখে দৃশ্যমান নয় এমন কিছু চিত্র উঠে এসেছিলো। ১৯৭০ সালে ufo sightings রিপোর্টটি করেছিলো।

এই বনে একাধিকবার একাধিক মানুষ নিখোঁজ হয়েছে, যাদের কোনোদিন সন্ধান মিলেনি। তবে বিজ্ঞানীরা মনে করেন, সেখানে ব্যাখ্যাতীত বৈদ্যুতিক শক্তি এবং আরও অনেক কিছু রয়েছে। তবে এর কোনো সঠিক ব্যাখ্যা পাওয়া যায়নি।

ওই বনে ঘুরতে যাওয়া দর্শকরা প্রায়ই বিভিন্ন তীব্র উদ্বেগ জনক অনুভূতি অনুভব করে থাকে। এবং তারা বিভিন্ন অভিজ্ঞতার কথা বর্ননা করে রিপোর্ট করে থাকে। মাঝে মাঝে বনের গাছপালা, ও শাঁখা প্রশাখা অদ্ভুদ রকমের আচরণ করে এবং তারা কোনো ধরণের বাতাস প্রবাহ ছাড়াই দ্রুততর ভাবে ব্যাখ্যাতীতভাবে নরতে থাকে।

11406771_66

একাবার দু’শো ভেড়ার একটি একপালের সঙ্গে একজন মেষপালক ওই বনের মধ্যে উধাও হয়ে যায়, এর পর ওই বনের নামকরণ করা হয়। বনের কাছাকাছি বসবাসকারী বেশীরভাগ মানুষই এই বনকে অনেক ভয় পায়। তাদের মধ্যে এই বন নিয়ে বেশকিছু পৌরাণিক কাহিনীও প্রচলিত আছে।

এই বনে প্রবেশ করলে মানুষের মধ্যে অনেক ধরণের প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। যেমন, বমি বমি ভাব, অনেক লাল লাল ফুসকুড়ি, বমি, মায়গ্রেইনস, পোড়া, উদ্বেগ, এবং অন্যান্য অস্বাভাবিক রকম উত্তেজনা অনুভূতি সহ শারীরিক ক্ষতি।-সূত্র: হোইয়া বাছিউ ডটকম।