মেইন ম্যেনু

বিশ্বে কোটিপতিদের তালিকায় সেরা ১৫ নারী

২০১৪ সালের আয়ের নিরিখে দুনিয়ার শীর্ষ কোটিপতিদের তালিকা প্রকাশ করেছে বিখ্যাত ফোর্বস ম্যাগাজিন। সেই তালিকায় নাম রয়েছে ১৫ জন মহিলার, যারা অর্থ ও প্রতিপত্তির নিরিখে অনেককেই পেছনে ফেলে দিয়েছেন।

কেউ কেউ নিজের যোগ্যতায় এ অর্থ উপার্যন করেছেন, আবার কেউ পেয়েছেন উত্তরাধিকারসূত্রে। এই ১৫ জনের মধ্যে বেশির ভাগই আমেরিকা, জার্মানি, ফ্রান্স এবং সুইজারল্যান্ডের। কারা সেই ১৫ জন মহিলা, যারা সংসারের পাশাপাশি নিজেদের পেশাদার জীবনেও সাফল্যের চূড়ায় পৌঁছাতে পেরেছেন।

১. ক্রিস্টি ওয়ালটন

কোটিপতিদের তালিকায় তার নাম রয়েছে ৬ নম্বরে। সম্পত্তির বেশির ভাগটাই ইনি পেয়েছেন প্রয়াত স্বামী জন ওয়ালটনের থেকে। ওয়াল মার্টের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন জন। ক্রিস্টির সম্পত্তির পরিমাণ ৪২.১ কোটি মার্কিন ডলার। ওয়াল মার্ট ছাড়া আরো একটি সংস্থায় ২৭ শতাংশ শেয়ারের মালিক ক্রিস্টি। ৬০ বছর বয়সী ক্রিস্টি ব্যক্তিগত জীবনকে লাইমলাইটের থেকে দূরে রাখতেই পছন্দ করেন। ভিওমিং-এর জ্যাকসনে বাস ক্রিস্টির।

২. অ্যালিস ওয়ালটন
ক্রিস্টি ছাড়াও ওয়ালটন পরিবারের আরো দুই নারী নাম রয়েছে এ তালিকায়। তার মধ্যে অন্যতম হলেন অ্যালিস। ওয়াল মার্টের আরও এক অংশিদার অ্যালিস। তার সম্পত্তির পরিমাণ ৩৯.৭ কোটি মার্কিন ডলার। পৃথিবীর ধনী ব্যক্তিদের মধ্যে তার নাম আসে ১০ নম্বরে। আর্ট কিউরেটর হিসেবে ইনি বিখ্যাত। ২০১১ সালে আরকানসাসের বেন্টোভিল-এ তিনি প্রতিষ্ঠা করেন ক্রিস্টাল ব্রিজেস মিউজিয়াম অফ আমেরিকান আর্ট।

৩. লিলিয়ান বেটেনকোর্ট

৯২ বছর বয়সী ফরাসি এই মহিলার সম্পত্তির মোট পরিমাণ ৩৮.৮ কোটি মার্কিন ডলার। ১৯৫৭ সালে তার বাবার মৃত্যুর পর থেকে লরিয়াল সংস্থার প্রধান শেয়ার হোল্ডার লিলিয়ান। যদিও লরিয়ালের বোর্ডে এখন আর তিনি নেই। লিলিয়ানের জায়গা নিয়েছেন তার ২৫ বছর বয়সী নাতি জঁ ভিক্টর মেয়ার্স।

৪. জাকলিন মারস

তার পদবি দেখেই নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন ইনি কোন বংশের! পৃথিবীর সর্ববৃহত্‍‌ ক্যান্ডি প্রস্তুতকারক সংস্থা মারস-এর অন্যতম মালিক জাকলিন। এর সম্পত্তির পরিমাণ ২৪ কোটি মার্কিন ডলার।

৫. সুজান ক্ল্যাটেন

জার্মানির সব থেকে ধনী মহিলা সুজান। BMW-এর স্রষ্টা অটোমেকার হারবার্ট কোঁয়ান্দের মেয়ে সুজান। তার মোট সম্পত্তির পরিমাণ ১৭.৫ কোটি মার্কিন ডলার।

৬. লরিন পাওয়েল জোবস

স্টিভ জোবসের স্ত্রী ৫১ বছর বয়সী লরিন পাওয়েল জোবসের সম্পত্তির মোট পরিমাণ ১৭.৪ কোটি মার্কিন ডলার। স্বামীর সঙ্গে মিলি অ্যাপেল সংস্থা শুরু করেছিলেন লরিন। দীর্ঘ সময় তিনি এ সংস্থার সিইও ছিলেন। এছাড়া দ্য ওয়াল্ট ডিজনির সব থেকে বেশি পরিমাণ শেয়ার আছে তার কাছে, যার পরিমাণ প্রায় ১৩ কোটি।

৭. অ্যানি কক্স চেম্বার্স

আমেরিকার ধনী ব্যক্তিদের তালিকায় তার নাম ২৮ নম্বরে। এর সম্পত্তির মোট পরিমাণ প্রায় ১৬.৭ কোটি মার্কিন ডলার। মিডিয়া এম্পায়ার কক্স এন্টারপ্রাইজের প্রতিষ্ঠাতা এম কক্সের মেয়ে অ্যানি।

৮. আবিগেইল জনসন

ফিডেলিটি ইনভেস্টমেন্টের চিফ এগজিকিউটিভ অফিসার আবিগেইল। ১৯৪৬ সালে এই সংস্থা শুরু করেন তার পিতামহ এডওয়ার্ড সি জনসন। তার সম্পত্তির মোট পরিমাণ ১৩.৬ কোটি মার্কিন ডলার।

৯. ​জোহানা কোঁয়ান্দ

জোহানা কোঁয়ান্দ BMW-এর প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত হারবার্ট কোঁয়ান্দের স্ত্রী। BMW-কে দেউলিয়া হওয়ার থেকে তিনিই বাঁচান। তার সম্পত্তির মোট পরিমাণ ১৩.৩ কোটি মার্কিন ডলার।

১০. আইরিস ফন্তবোনা

ক্রোয়েশিয়ান কোটিপতি আনদ্রোনিকো লুকসিকের স্ত্রী। পৃথিবীর বৃহত্তম তামার খনির মালিক ছিলেন তিনি। চিলের সব থেকে ধনী মহিলা আইরিস। তার সম্পত্তির মোট পরিমাণ ১২.৭ কোটি মার্কিন ডলার।

১১. জিনা রাইনহার্ট

অস্ট্রেলিয়ার সব থেকে ধনী ব্যক্তি ৬০ বছর বয়সী জিনা রাইনহার্টের সম্পত্তির মোট পরিমাণ ১১.৭ কোটি মার্কিন ডলার। হ্যানকক প্রসপেকটিং গ্রুপের মালিক এবং চেয়ারম্যান জিনা।

১২. শার্লেন দ কার্ভালহো এইকেন

নেদারল্যান্ডের সব থেকে ধনী মহিলা শার্লেন। এইকেন ইন্টারন্যাশনালে ২৫ শতাংশ শেয়ার আছে তার। তার সম্পত্তির পরিমাণ ১১.৭ কোটি মার্কিন ডলার।

১৩. ক্যারি পেরোদো

সিঙ্গাপুরেই জন্ম হয়েছে ক্যারির। একসময়ের সুপার মডেল এখন সফল ব্যবসায়ী। তাঁর সম্পত্তির মোট পরিমাণ প্রায় ৯.৪ কোটি মার্কিন ডলার।

১৪. এলাইন মার্শাল

এলাইন একজন ইনভেস্টর। কোচ ইন্ডাস্ট্রিতে ১৫ শতাংশ শেয়ার হোল্ডার এলাইন। তার মোট সম্পত্তির পরিমাণ ৮.৮ কোটি মার্কিন ডলার।

১৫. মার্গারিটা লুই দ্রেফাস

৫১ বছর বয়সী ফরাসি মার্গারিটার সম্পত্তির মোট পরিমাণ ৮.৬ কোটি মার্কিন ডলার। ফ্রান্সের কমোডিটি বাজারে বৃহত্তম সংস্থা লুই দ্রেফাসের কর্নধার মার্গারিটা।