মেইন ম্যেনু

বিস্মিত রফিক উল হক ও অ্যাটর্নি জেনারেল!

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার অভিসংশনের জন্য রাষ্ট্রপতিকে বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিকের চিঠি দেয়ার ঘটনায় বিস্ময় প্রকাশ করেছেন প্রবীণ আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক-উল হক। তিনি বলেন, এ ঘটনায় আমি বিস্মিত হয়েছি। এ ঘটনা বাংলাদেশের ইতিহাসে আর কখনও ঘটেনি।

রবিবার জানতে চাইলে কাছে এমন মতা প্রকাশ করেন দেশের বিশিষ্ট এই আইনজীবী।

একই রকম বিস্ময় প্রকাশ করেছেন দেশের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। তিনি বলেন, এ বিষয়টি আমাদের সকলেরই অবজ্ঞা করা উচিত। কারণ প্রধান বিচারপতি সাংবিধানিক পোস্ট। সাংবিধানিক পোস্টের কোনো ব্যক্তির বিরুদ্ধে এমন ঘটনা মানা যায় না। এ ঘটনায় আমরা বিস্মিত ও হতবাক হয়েছি।

রবিবার প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার বিরুদ্ধে অসদাচরণের অভিযোগ এনে তাঁকে অভিসংশনের জন্য রাষ্ট্রপতির কাছে চিঠি দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি শামসুদ্দীন চৌধুরী মানিক।

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের প্যাডে বিচারপতি শামসুদ্দীন চৌধুরীর মানিকের স্বাক্ষরিত অভিযোগপত্রে প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে গুরুতর অসদাচরণের অভিযোগ করেন।

বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার ‍সিনহার বিরুদ্ধে সংবিধান লঙ্ঘনসহ শপথ ভঙ্গের অভিযোগও এনেছেন তিনি। চিঠির অনুলিপি তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছেও দিয়েছেন বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে। বাংলাদেশের ইতিহাসে এ ধরনের ঘটনা এই প্রথম। প্রধান বিচারপতির পদটি সাংবিধানিক পদ।

দীর্ঘদিন ধরেই বিচারপতি মানিকের সঙ্গে প্রধান বিচারপরিত একটা বিরোধ চলে আসছিল। ধারণা করা হচ্ছে এরই ধারাবাহিকতায় এমন চিঠি দিয়েছেন তিনি বিচারপতি মানিক।