মেইন ম্যেনু

বিয়েতে পণ না পেয়ে স্ত্রীকে পর্ণ পরিচালকের কাছে বিক্রি!

বিয়েতে পণ না পেয়ে স্ত্রীকে পর্ণ ছবির পরিচালকের কাছে বিক্রি করার অভিযোগ উঠল টিকু পাটিকার নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে।

মাস দেড়েক আগে হরিয়ানার বাসিন্দা টিকুর সঙ্গে সাত পাকে বাঁধা পড়েন বিহারের রীতা (নাম পরিবর্তিত)। বিয়ের পর থেকেই শুরু হয় অমানবিক অত্যাচার। বাপের বাড়ি থেকে নগদ দুই লক্ষ টাকা নিয়ে আসার জন্যেও চাপ দেওয়া হয় রীতাকে।

স্বামী, ননদ, শ্বশুর-শাশুরি কেউই বাদ যেতনা কথা শোনাতে। বাধ্য হয়ে ক্ষেতমজুরের মতো মাঠের কাজও করতে হয়েছে রীতাকে।

একদিন রাতে স্বামী টিকু ও ননদদের গোপন কথা শুনে ফেলেন রীতা। তাঁর মতে, “টিকু ওর বোনেদের বলছিল যে ও (টিকু) আমায় এক পর্ন ছবির পরিচালকের কাছে বিক্রি করে সাত লক্ষ টাকা পেয়েছে। পরদিন সকালে আমায় ওই পরিচালকের হাতে তুলে দেবে।” তারপর দিনেই শ্বশুরবাড়ি থেকে পালিয়ে বিহারে চলে আসেন রীতা।

বিহারের সরণ জেলায় তারাইয়া থানা এলাকায় রীতার গ্রাম। বাপেরবাড়ি পৌঁছে পুলিশের কাছে স্বামী সহ শ্বশুরবাড়ির সকলের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন রীতা। সমগ্র ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বিহার পুলিশ।

বিহারের অনেক মেয়েই হরিয়ানায় বিয়ের পর পাচার হয়ে যাওয়ার অভিযোগ দীর্ঘদিনের। পাচারকারীর পুরো চক্রটিকে ধরার খোঁজে তদন্ত চালাচ্ছে পুলিশ।