মেইন ম্যেনু

বিয়ের দাবীতে প্রেমিকার বাড়ীতে আত্মহত্যার চেষ্টা

শাহ্ আলম শাহী, দিনাজপুর থেকে : দিনাজপুরের পার্বতীপুরে বিয়ের দাবীতে প্রেমিক রতন প্রেমিকার বাড়ীতে ৩দিন অবস্থানের পর বিষ পান করে আত্মহত্যার অচেষ্টা চালিয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটে সোমবার বিকেলে পার্বতীপুর উপজেলার মোস্তাফাপুর ইউনিয়নের ফরিদপুর এলাকা আওয়ামীলীগের এক নেতার বাড়ীতে।

পার্বতীপুর উপজেলার মোস্তফাপুর ইউপির ফরিদপুর মন্ডলপাড়া গ্রামের স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা সৈয়দ আলীর কলেজ পড়–য়া মেয়ের সাথে চিরিরবন্দর উপজেলার আমতলী নারায়নপুর কুয়েতী মসজিদ সংলগ্ন গোলাম রব্বানীর ছেলে রতন(২২) বিয়ের দাবীতে গত তিন পূর্বে প্রেমিকার বাড়ীতে অবস্থান নেয়। এসময় সৈয়দ আলী কৌশলে তার মেয়েকে পার্বতীপুর শহরে অত্ম¡ীয়র বাড়ীতে রেখে যায়।

রোববার রাতে রতনের বাবা, মা গোলাপী বেগম,দাদা আব্দুল হামিদ হাজীসহ ৭-৮ জন আওয়ামীলীগ নেতা সৈয়দ আলীর বাড়ীতে আসেন। বিয়ের প্রস্তাব দেন। এদিকে আওয়ামীলীগ নেতা সৈয়দ আলীর তার মেয়েকে এক পুলিশের উপ পরির্দশকের সাথে বিয়ে ঠিক করে। সোমবার দুপুরে নেতা সৈয়দ আলী তার মেয়েকে নিয়ে বাড়ীতে নিয়ে যায়। অনেকের উপস্থিতে সাড়ে ৩ বছরের প্রেমিক রতনকে বলে যে আমি তোমাকে চিনি না। এ কথায় রতনের দাদা আব্দুল হামিদ হাজী রতনকে চড়-থাপড় মারে। কোন সুরাহা না হলে বিকেলে রতনে বাবা মা চলে যায়। পরে বিকেল ৫ টার দিকে সৈয়দ আলীর বাড়ীতে প্রেমিকার সামনে রতন বিষ পানে করে। সৈয়দ আলীসহ গ্রামের অন্যান্যরা তড়ি ঘড়ি করে রতনকে আমবাড়ী উপ-স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা করে আত্মহত্যার হাত থেকে রক্ষা পায়।

রাত ৯টা দিকে এলাকার ইউপি সদস্য জিয়া মুঠোফোনে বলেন, রতন বিকেল ৫ টার দিকে আত্মহত্যার চেষ্টায় বিষ পান করে। চিকিৎসার পর বর্তমানে সে সুষ্ট রয়েছে। তিনি আরো জানান-প্রেমিক প্রমিকা দুর সম্পর্কের আত্মীয়। কলেজে একই শ্রেনীতে পড়ার সুবাদে তাদের সম্পর্ক গড়ে উঠে। ঘটনাটি এলাকায় চাঞ্চলের সৃষ্টি করেছে।