মেইন ম্যেনু

বিয়ের পর নারীদের পর্নো দেখার প্রবণতা বাড়ে

বিয়ের পর নারীদের পর্নো ছবি দেখার প্রবণতা বাড়ে। তবে পুরুষদের ক্ষেত্রে ঘটে উল্টোটা। সম্প্রতি এক গবেষণা তথ্যের বরাত দিয়ে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ইন্ডিপেন্ডেন্টে প্রকাশিত এক সংবাদে জানানো হয়েছে এমন তথ্য।

বিয়ের পর মানুষের যৌনতার উপর দৃষ্টিভঙ্গি কীভাবে পরিবর্তিত হয় বিষয়টি জানার জন্য গবেষকরা প্রায় ১০০ নারী এবং পুরুষের উপর জরিপ চালিয়েছেন। জরিপে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে ৯ শতাংশ নারী বলেছেন, তারা বিয়ের পূর্বেই পর্নো দেখতেন। কিন্তু ২৮ শতাংশ নারী বলেছেন তারা বিয়ের পরেই পর্নো দেখেছেন। বিবাহিত পুরুষদের মধ্যে শতকরা ২৩ জন বলেছেন তারা বিয়ের পূর্বে পর্নো দেখতেন এবং ১৪ শতাংশ বলেছেন তারা বিয়ের পরে পর্নো দেখেছেন।

সেক্সোলজিস জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে ওই গবেষণা তথ্যটি। গবেষকরা বলেছেন, বিয়ের পূর্বের এবং পরে পর্নোগ্রাফিতের নারী ও পুরুষের দৃষ্টিভঙ্গির মধ্যে বড় ধরণের পার্থক্য লক্ষ্য করা গেছে। গবেষণায় দেখা গেছে, বিয়ের পরে নারীদের মধ্যে পর্নো দেখার প্রবণতা বৃদ্ধি পায় যেখানে পুরুষদের মধ্যে প্রবণতা কমে।

গবেষকরা বলছেন, পর্নোগ্রাফির সহজলভ্যতার পর মানুষের মধ্যে যৌন আকাঙ্খার পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে। বিয়ের পর পুরুষদের মধ্যে প্রবণতা থাকে সামাজিক এবং অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠা লাভ। এজন্য পুরুষদের মধ্যে যৌনতাকে নিয়ে কল্পনার পরিমাণ কমে যায় এবং তারা স্বাভাবিক যৌন জীবনের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকতে চান।

অপরপক্ষে, সামাজিকভাবে মানুষের মধ্যে থাকা ধারণা পর্নো দেখা খারাপ-বিয়ের পরে এমন চিন্তাকে অনেকটা দূরে ফেলতে পারেন নারীরা। তারা মনে করেন, এখন তারা পর্নো দেখলে হয়ত সেটাকে খারাপ ভাবার কিছু নেই।