মেইন ম্যেনু

বিয়ের বয়স ৩৪, প্রেগন্যান্ট ২৮ বার!

১৯৮১ সালে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার পর এক বছর না যেতেই জন্ম দেন প্রথম সন্তানের। এরপর টানা ৩৪ বছরে গর্ভে সন্তান এসেছে ২৮ বার। ৭ বার অকাল গর্ভপাত ছাড়া ২১ সন্তান প্রসব করেছেন তুর্কি নারী রাজিয়ে গুনগোর। এর মধ্যে অসুস্থতায় মারাও গেছে ৪ জন।

তুরস্কের গাজিআন্তেপ জেলার এক প্রত্যন্ত গ্রামের খবর এটি। আব্দুল কাদির (৫৫) ও রাজিয়ে গুনগোর (৫১) জুটির দুনিয়া আলোড়িত করা এই সংখ্যায় ঘাবড়ে যায় প্রতিবছর নতুন করে জরিপে আসা স্থানীয় আদমশুমারি কর্তৃপক্ষও। এমনকি সর্বশেষ সন্তানের নিবন্ধন করার জন্য শুমারি খাতার ছক পাল্টাতে হয়েছে তাদের।

নিবন্ধন তালিকার জন্য বরাদ্দ দেয়া জায়গা পূর্ণ হয়ে যাওয়ায় নতুন করে ছক কেটে নাম লেখা হয়েছে। বর্তমানে ১৭ সন্তান ও ২৪ নাতি-নাতনিসহ ছেলের বউ কিংবা মেয়ের জামাই মিলে তাদের এই প্রজন্মই ৫১ জনের একটি বড় গোত্র তৈরি করেছে গ্রামটিতে।

৯ ছেলে আর ৮ মেয়ের বাবা-মা হিসেবে কোন আক্ষেপ নয়, বরং গর্ব করেন এই দম্পতি। ৩৩ থেকে ১ বছরের ব্যবধানের ১৭ ভাই বোনের মাঝে বিয়ে হয়েছে ৮ জনের। সবাইকে নিয়ে সুখেই আছেন আব্দুল কাদির। নিজের আর পরিবারের জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়াও চেয়েছেন তিনি।