মেইন ম্যেনু

বিয়ের মৌসুমে ৭টি উপায়ে নিয়ন্ত্রণে রাখুন আপনার ওজন!

শীতকালকে বিয়ের মৌসুম বলা হয়। আজ ভাইয়ের বিয়ে তো কাল বান্ধবীর বিয়ে! এত অনুষ্ঠানের মাঝে নিশ্চয় আপনার ডায়েট প্ল্যান ঠিকমত মানা হচ্ছে না? আর এত পোলাও, বিরিয়ানি খাওয়ার ফলে ওজনটাও বেড়ে গেছে অনেকখানি। এখন কি উপায়? আবার ব্যায়াম আবার ডায়েট করতে হবে! না, কিছু নিয়ম মেনে চললে উৎসবেও আপনি থাকুন একদম ফিট।

১। পার্টিতে যাওয়ার আগে খান

কোন দাওয়াত বা পার্টিতে যাওয়ার আগে কিছু খাবার খেয়ে নিন। সাধারণত ১০০ থেকে ২০০ ক্যালরি আছে এমন স্যাঙ্কস যেমন কয়েক টুকরো ফল, লো ফ্যাট দই, একটি কলা অথবা কিছু পরিমাণ বাদাম। এটি আপনার ক্ষুধা কিছু হলে কমিয়ে দেবে। যার ফলে আপনি দাওয়াতে অনেক খাবার খেতে পারবেন না।

২। ব্যায়াম করুন

আপনার যদি নিয়মিত ব্যায়াম করার অভ্যাস থাকে,সেটি এই উৎসবের সময় ত্যাগ করবেন না। অল্প কিছুক্ষণ হলেও নিয়মিত ব্যায়াম করুন। ব্যায়াম আপনার ওজন বৃদ্ধি করতে বাঁধা দেওয়ার সাথে সাথে আপনার মন খারাপ ভাব দূর করতে সাহায্য করবে।

৩। মিষ্টি জাতীয় খাবার কম খান

কেক, মিষ্টি, মিষ্টি জাতীয় খাবার কম পরিমাণে গ্রহণ করুন। এক চামচ কেক বা মিষ্টিতে আপনার শরীরে ৩০০ পর্যন্ত ক্যালরি বৃদ্ধি করে দিতে পারে।

৪। স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণ

আপনার যদি মাংসের বিকল্প হিসেবে সবজি বা অন্য কোন খাবার থাকে তবে মাংসের পরিবর্তে সবজি গ্রহণ করুন। মাছ বা সবজিতে মাংসের চেয়ে কম ক্যালরি থাকে, যা আপনার পেট ভরিয়ে দেবে এবং ওজনও ঠিক রাখবে।

৫। প্রচুর পরিমাণ পানি পান করুন

সফট ড্রিঙ্কের পরিবর্তে পানি পান করুন। এক গ্লাস ড্রিঙ্ক আপনার ওজন বৃদ্ধির জন্য যথেষ্ট। খাবার খাওয়ার আগে সম্ভব হলে দুই গ্লাস পানি পান করুন। এটি আপনার খাবার খাওয়ার প্রতি আকর্ষণ কমিয়ে দেবে।

৬। আস্তে আস্তে খান

আস্তে আস্তে ভাল করে চিবিয়ে খাবার খান। খাবার গ্রহণের ২০ মিনিট পর মস্তিষ্কে সংকেত পৌঁছে যায় যে আপনার পেট ভরে গেছে। তাই আপনি যদি আস্তে আস্তে অল্প পরিমাণ খাবার গ্রহণ করুন, সেটা আপনার পেট ভরিয়ে দিবে।

৭। হিসাব রাখুন

সপ্তাহিক কী পরিমাণে ক্যালরি গ্রহণ করবেন বা কী পরিমাণ খাবেন তার একটি লিস্ট রাখুন। খাদ্য তালিকা থেকে মিষ্টি বা মিষ্টি জাতীয় খাবার খাওয়া বন্ধ করবেন না। বরং কী পরিমাণে খাবেন, সেটি ঠিক করুন। প্রতিদিন কী পরিমাণ সবজি খাবেন সেটির পরিমাণ ঠিক করে নিন।

উৎসব অনুষ্ঠানে একটু হিসেব করে খাওয়া দেওয়া করলে এবং তার সাথে অল্প একটু ব্যায়াম আপনার ওজনকে ঠিক রাখতে সাহায্য করবে।