মেইন ম্যেনু

বিয়ে করতে বর পৌঁছলেন জ্যান্ত সিংহের খাঁচায় চড়ে, কারণ জানলে হবেন হতবাক

নিজের বিয়ের আসরে জাঁকজমক সহকারে প্রবেশ করার ইচ্ছে কোন পাত্রের না থাকে? তার জন্য ব্যান্ড-তাসাপার্টির বন্দোবস্ত তো থাকেই। গায়ে জমকালো পোশাকের সঙ্গে মাথায় পাগড়িও চড়ান অনেকে। রীতিমতো ‘গ্র্যান্ড এন্ট্রি’ নেওয়ার জন্য অনেকেই ঘোড়ায় চড়ে বিয়ের আসরে পৌঁছন। তবে সম্প্রতি পাকিস্তানের এক পাত্র যা করলেন, তা এই ব্যাপারে চূড়ান্ত নিদর্শনের নমুনা হিসেবে বিবেচিত হতে পারে। এই পাত্র নিজের বিয়ের আসরে হাজির হলেন একেবারে জলজ্যান্ত সিংহের মাথায় চড়ে।

একটি সর্বভারতীয় দৈনিকে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, পাকিস্তানের মূলতানে এক যুবক দিন কয়েক আগে বিয়ে করতে যান সিংহের পিঠে চড়ে। অবশ্য সৌভাগ্যের কথা এটাই যে, সিংহটি ছিল খাঁচায় বন্দি। ফলে বড়সড় বিপদ ঘটেনি কোনও।

জানা গিয়েছে, শেখ ইরফান নামের এই পাত্র বিয়ে করতে যাওয়ার সময়ে রীতিমতো প্রমাণ সাইজের একটি সিংহকে খাঁচায় ভরে তার উপর একটি সিংহাসন বসিয়ে তার উপরে জাঁকিয়ে বসেন। পাত্রীর বাড়িতে সদলবল পাত্র পৌঁছতেই হইচই পড়ে যায়। পাত্রের চেয়ে সিংহটিকে দেখার জন্যেই লোকের কৌতূহল তখন বেশি। খোদ ইরফান এবং তাঁর বাবা শেখ হাসমত এই ‘গ্র্যান্ড এন্ট্রি’ নিয়ে রীতিমতো গর্বিত।

বিয়ের আসরে যাওয়ার সময়ে এমন ডেয়ারডেভিল কাজকর্ম আগেও দেখা গিয়েছে। কিন্তু তার পরিণাম সব সময়ে শুভ হয়নি। ব্রাজিলের সাও পাওলো-তে এক তরুণী একবার নিজের বিয়ের আসরে হেলিকপ্টার নিয়ে আবির্ভূত হয়ে নিজের হবু বরকে চমকে দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ল্যান্ডিং-এর সময়ে সেই হেলিকপ্টার ভেঙে পড়লে পাত্রীসহ তিন জন নিহত হন।