মেইন ম্যেনু

বৃষ্টির পর যে সোঁদা গন্ধ পাওয়া যায় তা কীসের, জানলে চমকে যাবেন?

বৃষ্টি হলেই আমরা একটা গন্ধ পাই। যাকে সোঁদা গন্ধ বলে। এই গন্ধ নিয়ে বাংলা সাহিত্যে প্রচুর লেখা-লেখিও হয়েছে। আসলে বৃষ্টিকে যেমন একটা রোমান্টিক অনুষঙ্গ বলে অনেকে মনে করেন তেমনি, বৃষ্টির মধ্যে পাওয়া এই গন্ধ নিয়েও অনেকে ভাবাবেগে ভেসে যান।

বৃষ্টি থেমে যাওয়ার পর বাতাসে একটা সোঁদা গন্ধ নিশ্চয়ই পেয়েছেন। কিন্তু কখনো ভেবে দেখেছেন কি কোথা থেকে আসে এই গন্ধ? আসুন, জেনে নেয়া যাক।

আসলে বৃষ্টি হওয়া মানেই মাটি ভিজে যাওয়া। আর ভিজে মাটিতে স্যাঁত স্যাঁতে আবহাওয়ায় জন্ম নেয় অ্যাক্টিনোমাইসেটিস নামের এক ধরনের ব্যাকটেরিয়া। বৃষ্টি থামার পর মাটি যখন শুকোতে শুরু করে তখন এই ব্যাকটেরিয়া এক ধরনের বীজগুটি উৎপাদন করে। ভিজে মাটির ভিতরকার জলকণা যখন বাষ্পীভূত হয়ে বাতাসে মিশতে শুরু করে তখন সেই সঙ্গে ওইসব বীজগুটিও মিশে যায় বাতাসে। নিঃশ্বাসের সঙ্গে সেই বীজগুটি প্রবেশ করে আমাদের নাকে।

বৃষ্টি থামার পরে আমরা যে সোঁদা গন্ধটি পাই তা আসলে এই বীজগুটিরই গন্ধ। বৃষ্টি থামার পরবর্তী সোঁদা গন্ধটি যতই মধুর লাগুক তার নেপথ্যে আসলে রয়েছে ব্যাকটেরিয়া। আশা করা যায়, সোঁদা গন্ধটির প্রতি আপনাদের ভালবাসা হ্রাস পাবে না।-এবেলা