মেইন ম্যেনু

বেরোবিতে আইয়ুবের ‘বাংলা অভিযান’-এর কর্মচিত্র প্রদর্শনী

এইচ.এম নুর আলম, বেরোবি প্রতিনিধি : রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি)ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র ও রংপুরের কৃতী সন্তান এম এ আইয়ুবের ‘এপার বাংলা ও ওপার বাংলা অভিযানের বিভিন্ন সংরক্ষিত চিত্র প্রদর্শনী চলছে । প্রদর্শনীতে বাংলাদেশ ও ভারতের বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান ও গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় সাইকেলযোগে অভিযানের পঞ্চাশটিরও বেশি চিত্র প্রদর্শন করা হয়।কর্মচিত্র প্রদর্শনির সহযোগিতায় রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের ‘মার্কেটিং আই’ ও মিডিয়া পার্টনার হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি।

গতকাল ২৫ এপ্রিল থেকে শুরু হওয়া প্রদর্শনী আগামী ২৭ এপ্রিল চলবে বলে জানার গেছে। ‘বাংলা অভিযান’ চিত্র প্রদর্শনীতে রয়েছে আইয়ুবের সাইকেলযোগে বিভিন্ন স্থানে ভ্রমণের চমকপ্রদ দৃশ্য। এই প্রথম বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে আইয়ুবের নিজ উদ্যোগে প্রদর্শিত হচ্ছে তাঁর সাইকেলযোগে ভ্রমণবিষয়ক কর্মচিত্র।

এতে রয়েছে- মাউন্ট অ্যাভারেস্টে আরোহনকারী বাংলাদেশের অভিযাত্রী এমএ মুহিত ও নিশাত মজুমদারের সাথে গণজাগরণ মঞ্চে তোলা ছবি, কক্সবাজারে বাংলা ম্যারাথনে ৫ ঘন্টা ৫ মিনিটে ৪২.১৯৫ কিমি দৌড়ের ছবি,রোকেয়া স্মৃতিকেন্দ্রে পদচারণ ও সাইকের ভ্রমণের চিত্র,পদ্মাসেতুর জন্য বাসভাড়ার ৪৫০ টাকা ঢাবির ভিসিকে প্রদানকালে তোলা চিত্র,দার্জিলিং অভিযান সফল শেষে দর্শনার্থীদের সাথে পতাকা অবমুক্তকরনের চিত্র।

এছাড়াও ৯ দিনে ১০৬ ঘন্টা অতিক্রম করে সাইকেলে টেকনাফ থেকে তেতুঁলিয়া ভ্রমণ, ৮ দিনে টেকনাফ হয়ে তেতুঁলিয়ায় প্রবেশ, অভিযানের ৯ম দিনে ২০০০ কিমি অতিক্রমের বিজয় চিত্র,,তেতুঁলিয়া থেকে ফেরার পথে ইনানী বিচে অবস্থানের ছবিসহ প্রায় ৫৫ টির মতো কর্মচিত্র। প্রদর্শনীতে স্থান পেয়েছে আইয়ুবের ১ম দিনের ৩৮০.৭৫ কিমি অতিক্রমকালে সিরাজগঞ্জ রাস্তায় তোলা চিত্র এবং রয়েছে রংপুর সিটি কর্পোরশনের মেয়র শরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টুর সাথে তোলা ছবি।

প্রদর্শিত ছবির সাথে তাঁর অসাধরণ অর্জন ও আবেদনও সাঁড়া পাচ্ছে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে। তাঁর ভবিষ্যৎ কর্ম পরিকল্পনা হচ্ছে পুরো বাংলাদেশ ৫০০ দিনে সাইকেলযোগে ভ্রমণ করা এবং শিক্ষার্থীদের স্বাক্ষর গ্রহণ করা। তিনি বলেন, আমার এই অভিযানে শিক্ষার্থীরাই হবে স্পন্সর। পরবর্তী সময়ে সংগৃহীত শিক্ষার্থীদের নাম-ঠিকানা সংরক্ষণ করতে গিনেস বুক ওয়ার্ল্ড এর মতো আমি (বাংলা ওয়ার্ল্ড রেকর্ড বুকস ওয়েবসাইট খুলতে চাই। সেখানে সংগৃহীত সদস্যের নাম –ঠিকানা স্থান পাবে। তিনি বাংলাদেশ ভ্রমণ শেষে সারা বিশ্ব ভ্রমণ করতে চান সাইকেলযোগে।

রংপুরের শালবনের এই কৃতী সন্তান ‘অমর একুশে ও মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায়’ ২০১৩ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি বাংলা বান্ধা জিরোপয়েন্ট থেকে রাত্রি ১২ টা ১ মিনিটে যাত্রা শুরু করেন। ১ম দিনে ৩৮০ কিমি পেরিয়ে সিরাজগঞ্জ,২য় দিনে ভৈরব হয়ে ময়নামতির পথে ২৮০ কিমি এবং সর্বমোট ৯ দিনে তেতুঁলিয়া থেকে টেকনাফ হয়ে আবার তেতুঁলিয়ায় পৌঁছার প্রথম রেকর্ড গড়েন।

আবু আইয়ুব বিভিন্ন জায়গা থেকে কৃতিত্বস্বরুপ ক্যারাত,অ্যাথলেট,সাইক্লিং,পর্বতারোহণে জাতীয় ও আন্তর্জাতিকসহ ৮টি পুরস্কার লাভ করেন। তিনি ২০০৫ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যিালয়ে ভর্তি হয়ে মনস্তাত্তিক বিভাগ থেকে বি অনার্স শেষ করেন । প্রাথমিক শেষ করেন শালবন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৯৪ সালে।এরপর রংপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০০০ সালে এসএসসি এবং রংপুরের ক্যান্ট পাবলিক স্কুল থেকে ২০০৩ সালে এইচএসসি পাশ করেন।