মেইন ম্যেনু

বেরোবিতে কর্মচারি-কর্মকর্তাকে বহিস্কার-শোকজ নিয়ে ধোঁয়াশা

এইচ.এম নুর আলম, বেরোবি প্রতিনিধি: রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) একজন কর্মচারিকে বহিস্কার ও অপর এক কর্মকর্তাকে শোকজ নিয়ে ধোঁয়াশার সৃষ্টি হয়েছে। নিজের দপ্তর ছেড়ে অন্য কক্ষে গল্প করাকে কেন্দ্র করে কর্মচারিকে বহিস্কারের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে। অর্থ ও হিসাব দপ্তরের আরেক কর্মকর্তাকে শোকজ করা হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে বিষয়টি অস্বীকার করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মুহাম্মদ ইব্রাহীম কবীর।

জানা যায়, ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা দপ্তরের কর্মচারি রবিউল ইসলাম রবি এবং অর্থ ও হিসাব দপ্তরের কর্মকর্তা মাহবুবার রহমান গতকাল বুধবার দুপুরের দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন শাখার উপ-রেচিস্ট্রার মো: শাহজাহান আলী মন্ডলের কক্ষে গিয়ে অবস্থান করে। তাদের নিজ নিজ কক্ষে না থেকে দায়িত্ব ভুলে অন্যেও কক্ষে আড্ডা দেওয়ায় গতকাল দুপুরের দিকে রবিউল ইসলাম রবিকে বরখাস্ত ও কর্মকর্তা মাহবুবার রহমানকে শোকজ করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এর পরিপ্রেক্ষিতে আজ বৃহস্পতিবার সকালে পদত্যাগপত্র জমা প্রদানের গুঞ্জন উঠে।

এ ব্যাপারে সেই কর্মচারিকে জিজ্ঞেস করলে বলেন, আমাকে বহিস্কার করা হয়েছে কী না সেটা জানি না। তবে আমি পদত্যাগপত্র জমা দেইনি। তবে তিনি জানান, আজ সকালে ফান (মজা) করে কিছু কর্মচারির উদ্দেশ্যে পদত্যাগপত্র জমার ব্যাপারে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন। এ দিকে শোকজের গুঞ্জন উঠা কর্মকর্তাকে জিজ্ঞেস করলে বলেন, আমার শোকজের বিষয়টি আমি জানি না । এ ব্যাপারে আমাকে জানানো হয়নি।

শোকজ ও বহিস্কারের বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মুহাম্মদ ইব্রাহীম কবীর অস্বীকার করে বলেন, আমি এ বিষয়ে জানি না। আর আমার কাছে এ বিষয়ে কেউ পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার জন্য আসে নি।

তবে প্রশাসনিক ভবনের এক কর্মকর্তা জানান, তিনি সেই কর্মচারির হাতে পদত্যাগপত্র দেখেছিলেন তবে জমা দিয়েছেন কী না সেটা জানেন না। বিষয়টি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারিদের মধ্যে ধোঁয়াশার সৃষ্টি হয়েছে।