মেইন ম্যেনু

বেরোবিতে শেষ হলো আইয়ুব এর ৫ দিনব্যাপী কর্মচিত্র প্রদর্শনী

এইচ.এম নুর আলম, বেরোবি প্রতিনিধি : রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) শেষ হলো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র ও রংপুরের কৃতী সন্তান এম এ আইয়ুবের ৫ দিনব্যাপী চলা এপার বাংলা ও ওপার ‘বাংলা অভিযান’এর বিভিন্ন সংরক্ষিত চিত্র প্রদর্শনী ।এতে বাংলাদেশ ও ভারতের বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান ও গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় সাইকেলযোগে অভিযানের পঞ্চাশটিরও বেশি চিত্র প্রদর্শন করা হয়।
বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়,কলেজ এর দুই লক্ষ ১০ হাজার শিক্ষার্থীদের স্পনসরশীপের মাধ্যমে বিশ্বের পরিচিতি ‘গিনেস বুক ‘ এর মতো ‘বাংলা ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস বুক’ গড়ে তুলতে চান রংপুরের কৃতী সন্তান এম এ আইয়ুব। ২৫ এপ্রিল থেকে ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত চলা তাঁর বাংলা অভিযানের প্রদর্শনীর শেষ দিনে মিডিয়া পার্টনার বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সঙ্গে সাক্ষাৎকালে তিনি এ প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
‘বাংলা অভিযান’ চিত্র প্রদর্শনীতে রয়েছে আইয়ুবের সাইকেলযোগে বিভিন্ন স্থানে ভ্রমণের চমকপ্রদ দৃশ্য। এই প্রথম বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে আইয়ুবের নিজ উদ্যোগে প্রদর্শিত হচ্ছে তাঁর সাইকেলযোগে ভ্রমণবিষয়ক কর্মচিত্র।
প্রদর্শিত ছবির সাথে তাঁর অসাধরণ অর্জন ও আবেদনও সাঁড়া পাচ্ছে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে। তাঁর ভবিষ্যৎ কর্ম পরিকল্পনা হচ্ছে পুরো বাংলাদেশ ৫০০ দিনে সাইকেলযোগে ভ্রমণ করে মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে ছবি তোলা এবং শিক্ষার্থীদের স্বাক্ষর গ্রহণ করা। তিনি বলেন, ‘‘আমার এই অভিযানে শিক্ষার্থীরাই হবে স্পন্সর। পরবর্তী সময়ে ৭১ টাকায় স্পনসরশীপ গ্রহনকৃত শিক্ষার্থীদের নাম-ঠিকানা সংরক্ষণ করতে ‘গিনেস বুক ওয়ার্ল্ড’ এর মতো আমি ১৯৫২ পৃষ্ঠার ‘বাংলা ওয়ার্ল্ড রেকর্ড বুকস’ গড়ে তুলতে চাই। সেখানে সংগৃহীত সদস্যের নাম –ঠিকানা স্থান পাবে।’’ সাথে সাথে বিশ্বের বিভিন্ন বিষয়-বিজ্ঞান খেলাধুলা,কৃষিসহ অন্যান্য বিষয় স্থান পাবে এই বুকসে।
রংপুরের শালবনের এই কৃতী সন্তান ‘অমর একুশে ও মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায়’ ২০১৩ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি বাংলা বান্ধা জিরোপয়েন্ট থেকে রাত্রি ১২ টা ১ মিনিটে যাত্রা শুরু করেন এবং শেষ করেন ২৬ ফেব্রুয়ারি।
আবু আইয়ুব বিভিন্ন জায়গা থেকে কৃতিত্বস্বরুপ ক্যারাত,অ্যাথলেট,সাইক্লিং,পর্বতারোহণে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ করেন। রংপুর বিভাগ সাইক্লিং ক্লাব ও বাংলা মাউন্টেইন সাইকিস্টস এর প্রতিষ্ঠাতা আইয়ুব বিভিন্ন দেশে খেলায় জয়লাভ করে ৯টি পুরস্কারও লাভ করেছেন।
রংপুর শালবনের বাসিন্দা মরহুম আবুল কাশেমের সন্তান আইয়ুব ২০০৫ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যিালয়ে ভর্তি হয়ে মনোবিজ্ঞান বিভাগ থেকে বিএসসি অনার্স শেষ করেন । প্রাথমিক শিক্ষা শেষ করেন শালবন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৯৪ সালে।এরপর রংপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০০০ সালে এসএসসি এবং রংপুরের ক্যান্ট পাবলিক স্কুল থেকে ২০০৩ সালে এইচএসসি পাশ করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মাস্টার্স ইন জাপানিজ স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী থাকাকালীন আইয়ুব এ বাংলা অভিযান সম্পন্ন করেন।