মেইন ম্যেনু

বেশি শাসনের ফল হতে পারে বিরূপ

সব বাবা-মা চান তাদের আদরের সন্তান বেড়ে উঠুক ভদ্রভাবে। দুষ্টুমি আচরণ ঝেড়ে বাচ্চার মধ্যে থাকুক বাঞ্চিত আচরণ বোধ। আর তাই শাসন আর আদরের মাঝে তাকে বড় করে তোলা হয়। অথচ মাঝে মাঝে আদরের চেয়ে শাসনের মাত্রাটা একটু বেশিই হয়ে যায়। কিছু অভিভাবক সন্তানকে শাসন করতে গিয়ে রীতিমতো অতিষ্ট করে তোলেন। ফলে সন্তানের মনের ওপর বিরূপ প্রভাব পড়ে। সন্তানটি নৈতিকতা হারিয়ে উল্টো বখাটে হয়ে যায়। তাদের স্বভাবে গেঁথে যায় বেশ কিছু আচরণ। যেমন-

মিথ্যা বলায় পটু

যখন তখন বকাঝকা ও অতিরিক্ত কড়া শাসন আপনার সন্তানকে মিথ্যা বলায় পটু করে তুলতে পারে। ছোট খাটো অন্যায় স্বীকার করলে বাবা-মা বকা দেবে এই ভয়ে সন্তান ছোট খাটো ব্যাপারে মিথ্যা বলার অভ্যাস গড়ে তোলে। এভাবে ছোট ছোট মিথ্যা বলে বড় অপরাধ করেও লুকানোর চেষ্টা করবে। এমন পরিস্থিতি না চাইলে সন্তানকে আপনার বন্ধুতে পরিণত করুন। আপনার সঙ্গে তার ভালো-মন্দ ভাগাভাগি করে নেয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। এর ভেতর থেকে তার ভুলগুলো শুধরে দিতে পারেন সহজে।

খিটখিটে মেজাজ

অতিরিক্ত কড়া শাসনে বড় হলে সন্তান সাধারণত খিটখিটে মেজাজের হয়ে থাকে। সারাক্ষণ বকাঝকা ও মার খেলে সন্তান একগুয়ে হয়ে ওঠে। এক সময়ে এসব ছেলে মেয়েদের কঠিন মারধোর বা বকা দিয়েও শাসন করা যায় না। কারণ শাসন ও বকা তাদের গা সওয়া হয়ে যায়।

উদ্ধত আচরণ

সন্তানকে অতিরিক্ত কড়া নিয়মের মাঝে রাখলে তার মধ্যে নিয়ম ভাঙার প্রবণতা কাজ করবে। একটু দম ফেলার জন্য সে নিয়মের বাইরে যেতে আকর্ষণ বোধ করবে। যে কোনো নিয়ম ভঙ্গ করার মাঝে সে আনন্দও খুঁজে পাবে। নিয়ম ভাঙাকে সে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিলে তার আচরণ উদ্ধত হওয়ায় স্বাভাবিক।

আত্মবিশ্বাসের অভাব

খুব বেশি শাসনে বড় হওয়া সন্তানদের মাঝে আত্মবিশ্বাসের অভাব থাকে। বিশেষ করে যেসব অভিভাবক সন্তানের প্রতিটি কাজেই ভুল ধরেন, সেসব সন্তানের মাঝে আত্মবিশ্বাস কম থাকে। ফলে জীবনে প্রতি পদক্ষেপে তাদের হোঁচট খেতে হয়।

নিষিদ্ধ বস্তুতে আকর্ষণ

অতিরিক্ত শাসনে যারা বড় হয় তাদের নিষিদ্ধ বস্তুর প্রতি আকর্ষণ বেশি থাকে। নেশার জগতে পা বাড়ানোর প্রবণতাও থাকে। নিষিদ্ধ সব কিছুর প্রতিই অতিরিক্ত আকর্ষণের কারণে অধিকাংশ সময়ে তারা বিপথে যেতে পারে।



(পরের সংবাদ) »