মেইন ম্যেনু

বেসরকারি শিক্ষক সমাচার

বাংলাদেশের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাব্যবস্থার একটা বড় অংশ বেসরকারি স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসানির্ভর। হাতে গোনা কয়েকটি সরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও ক্যাডেট কলেজ থাকলেও মূলত এ দেশের মন্ত্রী, আমলা, ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, শিক্ষক, ব্যাংকারদের অধিকাংশই বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে পাঠ নেন বা নিচ্ছেন।
অথচ নির্মম সত্য, বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রতি সরকারের অবহেলা সংশ্লিষ্ট শিক্ষকদের মর্মপীড়ার কারণ। সরকারি কোন কর্মচারীরা বাড়িভাড়া বাবদ মূল স্কেলের ৫০ শতাংশ পর্যন্ত অর্থ পেলেও বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নিম্ন পদের কর্মচারী থেকে শুরু করে কলেজের অধ্যক্ষ পর্যন্ত প্রত্যেকে বাড়িভাড়া ভাতা পান ৫০০ টাকা। এ বৈষম্য মানুষ গড়ার কারিগরদের জন্য কি চরম অপমানজনক নয়?
কোনো কোনো বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অনিয়ম আছে কথাটা ঠিক। এমন অনেক বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানও আছে যাদের নিজস্ব তহবিলে কোটি কোটি টাকা। এমন সব প্রতিষ্ঠান কখনো চায় না যে সরকার এগুলোতে তদারকি করুক। তদারকিতে তাদের পুকুরচুরি সরকারের কাছে ধরা পড়ে যাবে।
তাই আমরা মনে করি, এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের দিকে নজর দেওয়া একান্ত জরুরি। শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্ট দপ্তরের প্রতি বিনীত অনুরোধ, বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর দিকে নজর দিন।
রাজকুমার সিংহ
শিক্ষক, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।