মেইন ম্যেনু

বেড়ীবাধঁ না থাকায় ভোলার চরফ্যাশনে ১০ হাজার মানুষ পানিবন্দী

ভোলা প্রতিনিধি: ভোলা জেলার চরফ্যাশন উপজেলার নজরুল নগর ইউনিয়নের ১ ও ২ নং ওয়ার্ডের প্রায় দুই কিলোমিটার বেড়ীবাঁধ না থাকায় জোয়ারের পানির সাথে যুদ্ধ করে ১০ হাজার মানুষ ২ বছর যাবৎ মানবেতর জীবনযাপন করছে।

মঙ্গলবার দুপুরে জোয়ারের সময় বাবুর হাট নামক এলাকার বেড়ীবাঁেধ বুড়াগৌড়াঙ্গ নদীর পানি বাড়ির উঠানে সহ ভিটে মাটি, রাস্তা পানিবন্দী অবস্থায় দেখা যায়।

নজরুল নগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রুহুল আমিন হাওলাদার জানান, পূর্ণিমা বা অমাবশ্যার জোঁর সময় ২ ইউনিয়নের বাসিন্দা সহ বাবুর হাট বাজারের রাস্তার উপর দিয়ে পানি গড়িয়ে ইউনিয়নের অর্ধেক অংশ পানিবন্দী থাকে।

১ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য রিয়াজ তালুকদার জানান, জোয়ারের পানি প্রবেশ করে ২ হাজার বসতি বাড়ীর পুকুরের মাছ নদীতে চলে গেছে। ২ নং ওয়ার্ডের নাজমা বেগম জানান, ২ বছর ধরে পানির সাথে যুদ্ধ করে বাস করলেও আজ পযন্ত কেউ তাদের খবর রাখেনি। বিগত রোয়ানুর সময় ঘরের মধ্যে ও পানি ছিল বিধায় চুলায় আগুন জ্বালাতে না পেরে ৩ দিন শুকনো খাবার চিড়া, মুড়ি, গুড় বাজার থেকে কিনে খেয়ে জীবিকা নির্বাহ করেছে।

নজরুল নগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জানান, ২ বছর আগে বেড়ী বাধঁটি ছিড়ে গেলেও পানি উন্নয়ন বোর্ড আজ পর্যন্ত ১০ হাজার মানুষের কথা বিবেচনা করে বিকল্প বাধঁ বা মেরামতের জন্য উদ্যেগ নেয়নি।
চরফ্যাশন পানি উন্নয়ন বোের্ড ২ এর সহকারী প্রকৌশলী নাহিদ আহম্মেদ জানান, আসলামপুর ,চর মাদ্রাজ, ইউনিয়নের বেড়ী বাধঁ মেরামতের জন্য অর্থ বরাদ্ধ হলেও নজরুল নগর ইউনিয়নের বেড়ীবাধঁ মেরামত করার অর্থ বরাদ্ধ হয়নি ।