মেইন ম্যেনু

বোরখা নিষিদ্ধ করলো আইএস

নারীদের বোরখা পরায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে তথাকথিত ইসলামিক স্টেট (আইএস)। বাধ্য হয়েই নাকি এই পদক্ষেপ নিতে হয়েছে আইএসকে। ভারতের আনন্দবাজার পত্রিকায় মঙ্গলবার এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে।

কেন নিষেধাজ্ঞা বোরখায়?
বোরখাকে এখন ভয় পেতে শুরু করেছেন আইএস কমান্ডাররা। সম্প্রতি আইএস শিবিরে বেশ কয়েকটি হামলা চালানো হয়েছে বোরখার আড়াল নিয়েই। আইএসের অনেক কমান্ডার বোরখাধারীদের হামলায় নিহত হয়েছেন গত কয়েক মাসে। বোরখার ভিতরে আগ্নেয়াস্ত্র লুকিয়ে আইএসের ডেরায় হাজির হয়েছে ঘাতকরা। তারপর অতর্কিতে হামলা চালিয়েছে। তাই নিজেদের জারি করা ফতোয়াই এখন সবচেয়ে বড় আতংকের কারণ হয়ে উঠেছে আইএসের জন্য। ইরাক ও সিরিয়ার যে অংশ এখনও আইএসের দখলে, সেই এলাকায় তাই এখন তাদের নতুন ফতোয়া— বোরখা পরে যেখানে সেখানে যাওয়া যাবে না।

তাহলে কি বোরখা থেকে মুক্তি পেয়ে গেলেন মহিলারা?
আইএসের দখলে থাকা অঞ্চলে মহিলারা বোরখার হাত থেকে মুক্তি পেয়ে গেলেন, এমন ভাবার কিন্তু কোনও কারণ নেই। বোরখায় সর্বাঙ্গ ঢেকে রাখার যে ফতোয়া মহিলাদের ওপর জারি হয়েছিল, তা জারিই থাকছে। কিন্তু আইএসের গুরুত্বপূর্ণ দফতর এবং সংরক্ষিত এলাকাগুলিতে বোরখা পরে ঢোকার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। অর্থাৎ আইএস কমান্ডাররা যেসব সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে থাকবেন, সেখানে ঢুকতে হলে বা থাকতে হলে মহিলাদারে বোরখা খুলে ফেলতে হবে!