মেইন ম্যেনু

ব্যস্ততম ঢাকা হঠাৎ কেন এত ফাঁকা?

রাস্তায় যানবাহনের আনাগোনা কম। ব্যস্ততা নিয়ে ছুটে চলা জনস্রোত নেই। সবখানেই ঢিলেঢালা ভাব। আজ বৃহস্পতিবার সকালে ঘর থেকে বেরিয়ে নগরের এ চিত্র দেখে রাজধানীর অনেক মানুষই অবাক হয়েছেন। মুহূর্তে ঠায় দাঁড়িয়ে তাঁরা ভেবেছেন, এত মানুষ আর গাড়িটাড়ি সব গেল কোথায়!

আজকের জাতীয় শিশু দিবসের সরকারি ছুটির সঙ্গে শুক্র ও শনিবারের সাপ্তাহিক দুই দিনের ছুটি যোগ হয়ে তিন দিনের ছুটি রাজধানীতে এই ঢিলেঢালা আমেজ সৃষ্টি করেছে। হইহল্লা, হর্ন আর যান্ত্রিক শব্দের চিরচেনা ঢাকার রূপ যেন অনেকটাই বদলে গেছে। মিরপুর থেকে শাহবাগে আসা পিয়াস কবিরের কাছে মনে হয়েছে, আজকের সকালের পথঘাট অনেকটা ঈদের তিন দিনের ছুটির সময়ের মতো। তিনি জানান, মোটরসাইকেলে মিরপুর থেকে ক্যান্টনমেন্ট হয়ে শাহবাগে পৌঁছাতে তাঁর ২০ মিনিটের মতো সময় লেগেছে। ট্রাফিক সিগনাল বা যানজটে পড়তে হয়নি তাঁকে।

কেউবা নিজের গ্রামের বাড়িতে গেছেন। আবার অনেকেই গেছেন সপরিবারে বা বন্ধুবান্ধবের সঙ্গে বেড়াতে। যাঁরা চাকরি করেন, তাঁদের অনেকেই বৃহস্পতিবারের সঙ্গে মিলিয়ে মঙ্গল-বুধবার কেউবা শুধু বুধবার ছুটি নিয়েছেন। আবার কেউ কেউ রবি ও সোমবার বা শুধু রোববার এক দিন ছুটি নিয়ে ঢাকা ছেড়েছেন।

সরকারি কর্মকর্তা নাজমুল ইসলাম বলেন, গত বছর দুই ঈদে তিন দিন করে ছুটি ছিল। এর সঙ্গে সাপ্তাহিক ছুটি মিলে যায়নি। তাই এই তিন দিনের ছুটি অনেকটা ঈদের ছুটির মতোই। অনেকেই এক-দুই দিনের ছুটি নিয়ে বাড়িতে নয়তো বেড়াতে বের হয়েছেন।

রাজধানী থেকে ছেড়ে যাওয়া সব ট্রেনের বুধ ও বৃহস্পতিবারের অগ্রিম টিকিট পাঁচ দিন আগেই বিক্রি হয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল মজিদ। প্রায় একই অবস্থা বাস, নৌ ও আকাশপথের। বুধ ও বৃহস্পতিবারের দূরপাল্লার বিলাসবহুল বাসের টিকিট আগেই শেষ হয়ে গেছে। আকাশপথের অবস্থাও একই। বাংলাদেশ বিমান ও ইউএস বাংলার বিভিন্ন রুটে চলাচলরত উড়োজাহাজের কম মূল্যের টিকিটও কেটেছেন কয়েকদিন আগেই।

সপরিবারে ঢাকা থেকে খুলনায় যাচ্ছিলেন মতিয়া খান। তিনি জানান, মাওয়া-শিমুলিয়া ঘাটে যানবাহনের চাপ ছিল। এ কারণে নদী পার হতে একটু বেশি সময় লেগেছে। তা ছাড়া ঢাকা থেকে বের হওয়ার প্রবেশপথ বাবুবাজার সেতুতে ভিড় ছিল। গতকাল ও আজ সকালে ঢাকা থেকে বের হওয়ার প্রবেশপথগুলোতে যানবাহনের চাপ বেশি ছিল বলে জানিয়েছেন হানিফ পরিবহনের বাসচালক আবু হোসেন।

জিয়াউল আহসান পরিবারের সবাইকে নিয়ে গ্রামের বাড়ি রংপুরে গেছেন। তিনি বাসের টিকিট কেটেছেন গত সোমবার। ওই দিন জিয়া জানান, কাউন্টারগুলোতে টিকিটের জন্য ব্যাপক ভিড় ছিল। সাধারণত তিনি যে গাড়িতে করে রংপুরে যাতায়াত করেন, ওই গাড়ির টিকিট পাননি। অন্য একটি গাড়িতে টিকিট কেটেছেন।

প্রশাসনের প্রাণকেন্দ্র সচিবালয়ের বহু কর্মকর্তা ও কর্মচারী ছুটি নিয়েছেন। আবার অনেকে সরকারি ছুটিতে ঢাকা ছেড়েছেন। কক্সবাজার, রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি, চট্টগ্রামসহ পর্যটন এলাকাগুলোতে মানুষের ভিড় বেড়েছে।

রাজধানীর প্রধান প্রধান সড়কে এখন যান চলাচল অনেক কম। নগরবাসী অনেকে বলেছেন, ছুটির দিনগুলোতে বিকেলে মানুষ বেড়াতে বের হয়। টানা তিন দিনের ছুটিতে তাই রাজধানীর বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে ভিড় বাড়বে।