মেইন ম্যেনু

ব্যারিকেড দিয়ে আসামি ছিনতাই, ৪ পুলিশ আহত

কুমিল্লায় রাস্তায় ব্যারিকেড দিয়ে পুলিশের কাছ থেকে হত্যাসহ দুই মামলায় এক আসামি ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে। ছিনিয়ে নেওয়ার সময় আসামি হ্যান্ডকাপ পরিহিত ছিল।

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ময়নামতি ইউনিয়নের বাজেবারচর গ্রামে সোমবার বিকেলে আসামি ছিনতাইয়ের সময় পুলিশ ও আসামিপক্ষের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে একজন এএসআইসহ পুলিশের চার সদস্য আহত হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানান, বিকেলে বুড়িচং থানার এএসআই নন্দন সরকারের নেতৃত্বে পুলিশের দল উপজেলার ময়নামতি ইউনিয়নের বাজেবারচর গ্রামে অভিযান চালায়। এ সময় ওই গ্রামের মাহবুবুর রহমানের ছেলে হত্যা ও ছিনতাইসহ দুই মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামি আবদুল হালিমকে গ্রেপ্তার করে সিএনজি অটোরিকশাযোগে থানার উদ্দেশে রওয়ানা হয়। এ সময় স্থানীয় ইউপি মেম্বার আবুল হোসেনের নেতৃত্বে তিন শতাধিক নারী-পুরুষ সড়কে ব্যারিকেড দিয়ে পুলিশ ও আসামি বহন করা অটোরিকশাটি আটকে দেয়। এক পর্যায়ে তারা পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে হ্যান্ডকাপ পরিহিত ওই আসামিকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। ওই হামলায় পুলিশের এএসআই নন্দন সরকার, কনস্টেবল শাহাদাত হোসেন, আবদুল মান্নান, সাফায়েত হোসেনসহ চারজন আহত হয়েছে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান লালন হায়দার ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

বুড়িচং থানার ওসি উত্তম কুমার বড়ুয়া জানান, পালিয়ে যাওয়া আসামিকে ধরতে পুলিশের চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।