মেইন ম্যেনু

ব্রিটিশ এমপিদের বিরুদ্ধে ইসরায়েলের ষড়যন্ত্র ফাঁস

ব্রিটেনের একাধিক এমপি ও দেশটির জ্যেষ্ঠ কয়েকজন রাজনীতিবিদকে উৎখাতে ইসরায়েলের ষড়যন্ত্র ফাঁস হয়েছে। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার ছয়মাসের এক অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

ব্রিটেনে নিযুক্ত সেদেশের দূতাবাসের উচ্চপদস্থ এক কর্মকর্তাকে ব্যবহার করে ইসরায়েল ওই ষড়যন্ত্র পরিকল্পনা করে। শাই মাসুত নামে ওই কর্মকর্তার এ ষড়যন্ত্র গোপন ক্যামেরায় ধারণ করেছেন আল জাজিরার এক প্রতিবেদক। এ নিয়ে ১৫ জানুয়ারি রাত সাড়ে ১০টা থেকে ‘দ্য লবি’ শিরোনামে ধারাবাহিক প্রতিবেদন প্রচার করবে আলজাজিরা।

আলজাজিরার আন্ডারকভার প্রতিবেদক রবিন (এলিয়াস) ব্রিটেনের লবি নেটওয়ার্কের সদস্যদের সঙ্গে ছয়মাস ধরে যোগাযোগ করেন। এই নেটওয়ার্কের সদস্যরা লন্ডনে দূতাবাসের মাধ্যমে ইসরায়েলি সরকারের কাছ থেকে শক্তিশালী সমর্থন পেয়ে থাকে।

ফিলিস্তিনের সমর্থক ব্রিটিশ প্রতিমন্ত্রী অ্যালান ডানকানসহ আরও কয়েকজন পার্লামেন্ট সদস্যকে উৎখাতের ষড়যন্ত্র করেন ওই কর্মকর্তা। মাসুত ব্রিটিশ শিক্ষামন্ত্রী রবার্ট হাফলনের সহযোগী মারিয়া স্ট্রিজলোর সঙ্গে এক রেস্তোঁরায় কথা বলছিলেন। হাফলন আলজাজিরার আন্ডারকভার প্রতিবেদক হিসেবেও কাজ করেন।

রবিন ইসরায়েলের প্রতি তার শক্তিশালী সমর্থন ও সহানুভূতির কথা জানিয়ে দেন ওই কর্মকর্তাকে। একইসঙ্গে যেকোনো ধরনের সহযোগিতার জন্য তিনি প্রস্তুত বলে জানান। আলজাজিরার অনুসন্ধানী ইউনিট বলছে, ব্রিটেনের জ্যেষ্ঠ রাজনীতিবিদদের কেরিয়ার ধ্বংস করতে ইসরায়েলি দূতাবাসের ষড়যন্ত্র পরিকল্পনা তারা ফাঁস করবেন।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, ওই কর্মকর্তা নিজেকে দূতাবাসের কর্মকর্তা ও ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্য হিসেবে পরিচয় দিচ্ছেন। একই সঙ্গে ব্রিটেনের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী বোরিস জনসনসহ একাধিক মন্ত্রী ও কনজারভেটিভ দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র পরিকল্পনার কথা জানান। শুধু তাই নয়, কীভাবে এ পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা হবে সে দিকনির্দেশনাও দেন ইসরায়েলি ওই কর্মকর্তা।

ব্রিটেনে নিযুক্ত ইসরায়েলের রাষ্ট্রদূত মার্ক রিজেভ দূতাবাস কর্মকর্তার এ কাজের জন্য শুক্রবার ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন। তিনি বলেছেন, ওই কর্মকর্তার এ ধরনের কর্মকাণ্ড সম্পূর্ণরুপে অগ্রহণযোগ্য। দূতাবাস কর্মকর্তা মাসুতকে শিগগিরই চাকরিচ্যুত করা হবে বলে জানিয়েছে ইসরায়েল।