মেইন ম্যেনু

ব্রিটেনে হেনস্থার শিকার বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নাদিয়া

‘প্রত্যেকটা জঙ্গি হামলার পর আমার মাথার ওপর মেঘের পাহাড় নিয়ে দরজার বাইরে যাই। যখন আমি ট্রেনে থাকি, মানুষ তখন আমার থেকে দূরে বসেন, আমার পিঠে ব্যাগ অথবা স্যুইটকেস থাকে… আমি বাসের অপেক্ষা থাকার সময় লোকজনের গুতা খাই, ইসলামভীতি থেকে অনেকে হেনস্তাও করেন’।

ব্রিটেনে ‘গ্রেট ব্রিটিশ বেক অফ প্রতিযোগিতা’য় গত বছর শিরোপা জিতেছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক নাদিয়া হুসেইন। বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে জঙ্গিদের হামলার পর কী ধরনের পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয় সে বিষয়ে জানিয়েছেন ব্রিটেনের প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম দ্য টাইমস ম্যাগাজিনকে।

নাদিয়া হুসেইন বলেন, তাকে অনেক বিব্রতকর পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয়, ইসলামভীতি থেকে অনেকেই তাকে হেনস্থা করেন। তবে এটি ভয়াবহ আকার ধারণ করে প্রত্যেকটি জঙ্গি হামলার পর।

নাদিয়া লিডসে বাস করেন। গ্রেট ব্রিটিশ বেক অফ প্রতিযোগিতার রান্না বিষয়ক একটি অনুষ্ঠান ব্রিটেনের জনপ্রিয় টেলিভিশন অনুষ্ঠানগুলোর মধ্যে একটি। গত বছর চূড়ান্ত পর্বটি দেখতে এক কোটি ৩৪ লাখ দর্শক টেলিভিশনের সামনে ছিলেন। এ পর্বটি সবচেয়ে বেশি দেখা টেলিভিশন অনুষ্ঠানের মধ্যে একটি।

ওই প্রতিযোগিতার পর থেকে সংবাদপত্রে কলাম লিখছেন নাদিয়া। কিছুদিন আগে ব্রিটিশ রাণীর জন্মদিনের কেক বানিয়েছিলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এই ব্রিটিশ বেকার। ব্যাপক জনপ্রিয়তা সত্ত্বেও ধর্ম এবং হিজাব পড়া নিয়ে অনলাইনে হেনস্থার স্বীকার হন তিনি। গত জানুয়ারিতে নাদিয়া তার বাড়িতে পুলিশি নিরাপত্তার কথা প্রকাশ করেন।

গত বছরের নভেম্বরে প্যারিসে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার পর তার ভাই মৌখিক আক্রমণের শিকার হন।