মেইন ম্যেনু

ব্রেকাপ? ফিরে আসুন আনন্দময় জীবনে আবারও!

আমরা অনেক যত্নে একটি ভালবাসার সম্পর্ক গড়ে তুলি। কিন্তু সেই সম্পর্ক সব সময় টেকে না। কখনো প্রতারণার শিকার হয়ে ভেঙে দিতে হয় সম্পর্ক। কখনো বা পরিস্থিতি আমাদের নাগালের এত বাইরে চলে যায় যে বাধ্য হয়ে আমরা সবকিছু সেষ করে দিই। ভালবাসা হয়ত থাকে কানায় কানায় পূর্ণ। কিন্তু জীবন শুধু ভালবাসা নয়, চায় বোঝাপড়া, কিছু ত্যাগ, কিছু সমঝোতা। সব কিছু না মিললে সেই প্রেম টিকিয়ে রাখা খুব কঠিন।

কী করবেন যদি প্রিয় মানুষটিকে আর ধরে রাখা না যায়? নিজেই নিজেকে ফিরিয়ে আনুন আনন্দময় জীবনে আবার।

কাজে মন দিন
আপনি হয়ত পড়াশোনা করছেন। অথবা কোন বিশেষ পেশায় নিয়োজিত আছেন। নিজের কাজে মন দিন। কাজ আমাদের মনোযোগকে ফিরিয়ে আনে বর্তমানে। ব্যস্ততা সাহায্য করে অনেক কিছু ভুলে থাকতে।

একা থাকবেন না
একা থাকলেই আমাদের মস্তিষ্ক পুরোনো সময়কে নিয়ে স্মৃতিচারণে ব্যস্ত হয়ে পড়ে। তাই একা থাকবেন না। পরিবারের সাথে সময় কাটান। বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিন। সারাক্ষণ নিজেকে সংযুক্ত রাখুন কারও না কারও সাথে।

বন্ধুদের সাথে বেড়িয়ে আসুন
ভ্রমণ মনকে প্রশান্ত করে। প্রকৃতি মনের ক্ষত সারিয়ে তোলে অনেকটাই। ভ্রমণে বেড়িয়ে পড়ুন। নতুনকে দেখুন, জানুন। রোমাঞ্চকর কিছু করুন। হয়ত আপনার অনেক দিনের সখ ছিল কোন বিশেষ জায়গা দেখার। সেখানে যান। হয়ত ভেবেছিলেন একবার হলেও আকাশে উড়ে বেড়াবেন। চলে যান কাছাকাছি এমন কোথাও যেখানে প্যারা সাইক্লেলিং করা যায়। এই কাজগুলো আপনার চোখে বদলে দেবে জীবনের মানে।

সখের কাজগুলো করুন
আমাদের সখের কাজগুলো প্রায়ই করা হয়ে ওঠে না। সত্যি বলতে সম্পর্ক আমাদের অনেক সময় নিয়ে নেয়। আপনি যাকে ভালবাসতেন তার সাথে নিশ্চয়ই দীর্ঘসময় ফোনে কথা বলতেন, চ্যাট করতেন। এই সময়গুলো কোনভাবেই ভুল দিকে ব্যয় করতে শুরু করবেন না। অপরিচিতদের সাথে বন্ধুত্ব করা, ভুল কোনকিছুর সাথে জড়িয়ে পড়ার বদলে নিজের সাথে থাকুন, আপনার সখের কাজগুলো করুন।

পুরোনো ছবি দেখা বন্ধ করুন
নিজের উপর অত্যাচার করবেন না। পুুরোনো সময়কে নিয়ে যত ভাববেন তত আপনি কষ্ট পাবেন। তাই পুরোনো ছবি দেখা বন্ধ করুন। ফেসবুকে, মোবাইলে পুরোনো মেসেজ বা এজাতীয় যে কোনকিছু যা আপনাকে ফিরিয়ে নিতে চায় অতীতে তার সব কিছু থেকেই দূরে সরে আসুন।

নতুন কিছু করুন
নতুন মানেই আনন্দ, নতুন মানেই রোমাঞ্চ। নতুন কিছু করুন। হতে পারে খুব ছোট্ট কিছু। যেমন বদলে ফেলুন নিজের চুলের কাট, ভাল একটা মেকোভার করুন নিজের। মেডিটেশন করতে শুরু করুন নিয়মিত। অথবা রোজ সকালে বেড়িয়ে পড়ুন জগিং করতে। সাঁতার শিখুন। অথবা গান করুন, নাচ শিখুন। জীবনকে উপভোগের সব দ্বার খুলে দিন।