মেইন ম্যেনু

বড়াইগ্রামে পুনঃনির্বাচনের দাবী আ’লীগের দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর

নাটোর প্রতিনিধি : নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার চান্দাই ও গোপালপুর ইউপি নির্বাচনে রিটার্নিং অফিসার ও প্রিজাইডিং অফিসারদের প্রভাবিত করে বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থনে জাল ভোট দেয়ার অভিযোগ এনে অবিলম্বে পুনঃনির্বাচনের দাবী জানিয়েছেন আওয়ামীলীগ মনোনীত দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী ও স্থানীয় নেতাকর্মীরা। একই সঙ্গে নৌকার সমর্থকদের উপর অব্যাহত হামলা, ভাংচুর ও নির্যাতন বন্ধের দাবী জানান। বুধবার সকাল ১১টায় ও দুপুর দুইটায় পৃথক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবী জানান তারা।

সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে তারা বলেন, চান্দাই ইউনিয়নে বিদ্রোহী প্রার্থী আনিসুর রহমান খেচু ও গোপালপুরের বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুস সালাম খান স্থানীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস এমপির বিশেষ আস্থাভাজন ব্যাক্তি। এ প্রভাবকে কাজে লাগিয়ে তারা অর্থের বিনিময়ে রিটার্নিং অফিসার ও প্রিজাইডিং অফিসারদের হাত করে প্রতিটি কেন্দ্রে আড়াইশ থেকে ৩ শ ব্যালট পেপার আগের রাতেই আয়ত্তে নিয়ে নিজেদের প্রতীকে সিল মেরে ভোটের দিন নিজস্ব ভোটারদের মাধ্যমে ব্যালট বাক্সে ঢোকান। যার প্রমাণ হিসাবে গণনার সময় প্রতিটি কেন্দ্রেই একসঙ্গে বিদ্রোহী প্রার্থীদের চশমা প্রতীকে সিল মারা ১০-১২টি ব্যালট পেপার একসঙ্গে ভাঁজ করা অবস্থায় পাওয়া যায়।

এছাড়া মাপে ছোট বড় নকল ব্যালট পেপার থাকা, নির্বাচন কমিশনের দেয়া সিলের সঙ্গে ব্যালট পেপারের সিল না মেলা, চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের প্রাপ্ত ভোটের সংখ্যার গড়মিল, এজেন্টদের বের করে দেয়া, বেশ কয়েকটি কেন্দ্রের ফলাফল ঘোষণা না দিয়ে উপজেলা সদরে নিয়ে ঘোষণা দেয়া, কেন্দ্র দখল করে সিল মারার ঘটনাও ঘটেছে বলে তারা অভিযোগ করেন। নির্বাচনের পর থেকে বিদ্রোহী প্রার্থীর লোকজনের হুমকি-ধামকি, বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলার ঘটনায় চান্দাই ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি গোলাম মোস্তফাসহ দুটি ইউনিয়নের তিন শতাধিক নেতাকর্মী প্রাণভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। এসব বিষয়ে প্রশাসনকে লিখিতভাবে অবহিত করা হলেও কোন প্রতিকার হচ্ছে না বলে তারা অভিযোগ করেন। সংবাদ সম্মেলনে তারা হামলা বন্ধসহ জালিয়াতির অভিযোগে ২৮ মে অনুষ্ঠিত নির্বাচন বাতিল করে প্রধানমন্ত্রী ও দলের ভাবমূর্তি ফেরাতে অবিলম্বে তফশীল ঘোষণার মাধ্যমে পুনঃনির্বাচনের দাবী জানান।

বনপাড়ায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে জেলা আওয়ামীলীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। এখানে গোপালপুর ইউপি নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত পরাজিত প্রার্থী আবু বকর সিদ্দিক ও বনপাড়া পৌর আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক আবুল কালাম আযাদ, চান্দাই ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠণিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম মান্নান বক্তব্য রাখেন। অপরদিকে, দিয়াড়গাড়ফায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন চান্দাই ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমান জিন্নাহ। এ সময় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম ও নবনির্বাচিত ওয়ার্ড মেম্বার আব্দুস সালামসহ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

তবে এসব বিষয়ে এ দুই ইউনিয়নের রিটার্নিং অফিসার উপজেলা প্রকৌশলী শহিদুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে যা হয়েছে নিয়মের মধ্যে থেকেই হয়েছে বলে তিনি দাবী করেন।