মেইন ম্যেনু

বয়স ১৪৫, আর বাঁচতে চাই না

বিশ্বের প্রবীণ ব্যক্তির সন্ধান পাওয়া গেছে ইন্দোনেশিয়ায়। ১৪৫ বছরের এমবাহ গোথোর জন্ম হয়েছিল ১৮৭০ সালে। রোববার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ইন্ডিপেন্ডেন্ট এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

গোথো জানিয়েছেন, ১৯৯২ সাল থেকে তিনি মৃত্যুর প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এর জন্য তিনি নিজের কবরও খুঁড়ে রেখেছেন। কিন্তু ২৪ বছর পেরিয়ে গেলেও এখনো তিনি জীবিত আছেন।

গোথোর ১০ ভাইবোনের মধ্যে কেউই এখন জীবিত নেই। এ ছাড়া তার চার স্ত্রীর মধ্যে সর্বশেষ জনের মৃত্যু হয়েছে ১৯৮৮ সালে। সন্তানদের মধ্যে কেউ এখন বেঁচে না থাকলেও পৌত্র-প্রপৌত্রদের সঙ্গে বাস করছেন তিনি।

স্থানীয় একটি সংবাদমাধ্যমকে গোথো বলেন, ‘এখন আমি কেবল মৃত্যুই চাই।’ তিন মাস ধরে গোসল করতে পারছেন না তিনি। চামচের মাধ্যমে তাকে খাওয়াতে হয়। তার শারীরিক পরিস্থিতি প্রতিনিয়ত অবনতির দিকে যাচ্ছে।

ইন্দোনেশিয়ার সরকারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, নথি অনুযায়ী, গোথোর জন্ম ১৮৭০ সালের ৩১ ডিসেম্বর। আর নিরপেক্ষ সূত্র থেকে এটির সত্যতা নিশ্চিত করা গেলে গোথোই হবেন বিশ্বের সবচেয়ে প্রবীণ ব্যক্তি। এর আগে বিশ্বের প্রবীণ ব্যক্তি হিসেবে গিনেজ বুকে নাম উঠেছিল ফরাসি নাগরিক জিন কালমেন্টের। তার বয়স হয়েছিল ১২২ বছর।



« (পূর্বের সংবাদ)