মেইন ম্যেনু

ভবিষ্যতে ফেসবুক অ্যাপে যা পাচ্ছেন

এ সপ্তাহে বিভিন্ন দেশের ডেভেলপারদের নিয়ে হয়ে গেলো বার্ষিক এফ ৮ সম্মেলন। ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ তার ১০ বছরের পরিকল্পনা জানান। ২০১৬ সালেও ‍তিনি এ বিষয়ে মুখ খুলেছিলেন।

তার পরিকল্পনা অনুযায়ী ফেসবুক তার ব্যবহারকারীদের কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, নিরবিচ্ছিন্ন ইনটারনেটের সংযোগ এবং আরো বেশি ভার্চুয়াল বাস্তবতার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেবে।

ফেসবুক অ্যাপে এখন ব্যবহারকারীরা ক্যামেরা ব্যবহার করতে পারছেন আরো বেশি সুবিধাসহ। যা এখন স্ন্যাপচ্যাটের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। এতে আপনি পাচ্ছেন বিভিন্ন ধরণের ইফেক্ট।

মেসেঞ্জার দিয়ে এখন শুধু চ্যাটই করতে পারবেন না বরং বিভিন্ন ধরণের টিকেট, রাতের খাবারের জন্য রেস্তোরাঁয় বুকিং দেওয়াসহ বিভিন্ন কাজ করতে পারবেন। এখানে আপনি যেকোনো গান গ্রুপে শেয়ার করতে পারবেন। যা একসঙ্গে সবাই শুনতে পাবে।

ফেসবুক ভিআর গিয়ার কেনার পরিকল্পনা করেছে। এতে আপনি নিজে কার্টুন অ্যাভাটার হয়ে গেম খেলতে পারবেন, অন্য অ্যাভাটার বন্ধুদের সঙ্গে সেলফি তুলতে পারবেন, ছবি শেয়ার করতে পারবেন এবং এমনকি ভিডিও কল দিয়ে অপর পক্ষকে বাস্তব জগতের মতো সামনে আনতে পারবেন। শুনে মনে হচ্ছে কোনো বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী। অনেকে হয়তো বলবেন বাস্তব জগতে বন্ধু বানানো সবচেয়ে ভালো। কিন্তু যে মানুষ দূরে রয়েছে তার সঙ্গে যোগাযোগ রাখার এটি চমৎকার প্রক্রিয়া। এ প্রযুক্তির অভিজ্ঞতার নিতে আপনাকে অবশ্যই একটি ভিআর গিয়ার কিনতে হবে।

ক্লাউড স্টোরেজ ও গুগল ড্রাইভের মতো ফেসবুক তাদের আলাদা স্টোরেজের ব্যবস্থা করছে ব্যবহারকারীদের জন্য। এখানে আপনি ইচ্ছামতো ফাইল রাখতে পারবেন। শেয়ার করতে পারবেন।

ফেসবুক অ্যাপল, গুগল ও মাইক্রোসফটের মতো কোম্পানির সঙ্গে টেক্কা দিতে নতুন যুগের সূচনা করতে যাচ্ছে। নিউইয়র্ক টাইমসের ভাষ্য অনুযায়ী অন্যদের মতো স্মার্টফোনের অপারেটিং সিস্টেম তৈরি না করলেও ফেসবুক তার অ্যাপ দিয়েই সকল স্মার্টফোন নিজের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসছে।

সূত্র-বিবিসি, বিজনেস ইনসাইডার