মেইন ম্যেনু

ভাইরাস ও সর্দি-জ্বর থেকে বাঁচতে অব্যর্থ ওষুধ এই ঘরোয়া কৌশল

আবহাওয়া বদল বা সিজন চেঞ্জের সময়ে অল্পবিস্তর সর্দিকাশি কিংবা ভাইরাল ফিভারে আক্রান্ত হন না, এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া কঠিন। আর এই ধরনের রোগে আক্রান্ত হওয়া মানেই ডাক্তারের কাছে ছোটা, আর কড়া ডোজের ওষুধ খাওয়া। শরীর খারাপ হলে ডাক্তারের কাছে যেতে হবেই, কিন্তু কথায় বলে প্রিভেনশন ইজ বেটার দ্যান কিউর। অর্থাৎ রোগ সারানোর তুলনায় রোগ প্রতিরোধ করতে পারা স্বাস্থ্যসম্মত। কিন্তু কীভাবে সেই রোগ প্রতিরোধ সম্ভব? অ্যাসোসিয়েশন ফর অ্যাডভান্সড মেডিকাল সায়েন্সেস অফ সিডনি তাদের একটি সাম্প্রতিক গবেষণাপত্রে হদিশ দিচ্ছে এমন একটি ঘরোয়া কৌশলের যার সাহায্যে রুখে দেওয়া যেতে পারে ভাইরাস ও সর্দি-জ্বরের আক্রমণ।

কী লাগবে এই ঘরোয়া কৌশল প্রয়োগ করতে? লাগবে সামান্য দু’টো জিনিস— দু’কোয়া রসুন, আর পঞ্চাশ গ্রামের মতো আদা। রোজ সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে এই দু’টো জিনিস কাঁচা অবস্থায় চিবিয়ে খেয়ে নিন। ব্যস্, আপনার কাজ শেষ। এই দু’টো উপাদান আপনার চারপাশে এমন একটি সুরক্ষাবলয় তৈরি করবে যে চট করে সর্দি-জ্বর আপনার ধারে কাছে আসতে পারবে না।

কিন্তু কীভাবে আপনাকে সুস্থ রাখে আদা আর রসুন? আসলে রসুন হল প্রাকৃতিক অ্যান্টি ফাংগাল, অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল, এবং অ্যান্টি ক্যানসার গুণ সমৃদ্ধ। এতে অ্যালিসিন নামের এমন একটি প্রাকৃতিক উপাদান থাকে যা অ্যান্টিবায়োটিক হিসেবে কাজ করে। এছাড়া ভিটামিন সি, পটাসিয়াম-এর মতো উপাদানেও এটি সমৃদ্ধ। অন্যদিকে আদা শরীরে রক্ত সঞ্চালন ব্যবস্থার উন্নতি সাধন করে এবং কলেস্টরল ও ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণ করে। ফলত এই রসুন আর আদা যখন আপনি একসঙ্গে সেবন করেন তখন তা আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক গুণে বাড়িয়ে দেয়, এবং আপনাকে সুস্থ থাকতে সাহায্য করে।