মেইন ম্যেনু

ভাগ্যগুণে বেঁচে গেলেন ব্রাজিলের তিন ফুটবলার

কলম্বিয়ায় বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় ৭৫ জন নিহত হলেও ভাগ্যগুণে বেঁচে গেছেন ব্রাজিলের প্রথম বিভাগের ফুটবল ক্লাব শ্যাপেকোন্সের তিন খেলোয়াড়সহ ছয়জন।

বেঁচে যাওয়া তিন খেলোয়াড় হলেন রক্ষণভাগের অ্যালাম রসুশেল, গোলরক্ষক মার্কোস ড্যানিলো পাডিলহা এবং রিজার্ভ গোলরক্ষক জ্যাকসন ফলমান।

এছাড়া ফ্লাইট অ্যাটেনডেন্ট জিমো সুয়ারেজ প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন বলে জানিয়েছে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম মি ওরিয়েন্টে।

বার্তাসংস্থা রয়টার্স ব্রাজিলের টিভি চ্যানেল গ্লোবোনিউজ এবং স্পোর্টটিভির বরাতে এ খবর জানিয়েছে।

স্থানীয় সময় সোমবার রাত সোয়া ১০টার দিকে কলম্বিয়ার রাজধানী মেডেলিনে বিমানটি বিধ্বস্ত হয় বলে জানিয়েছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম।

বিমানটিতে ১০ জন খেলোয়াড় ও নয়জন ক্রুসহ ৮১ জন আরোহী ছিলেন বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে জোসে মারিয়া করডোভা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বিধ্বস্ত হওয়ার পর বিমানটি পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে গেছে। আরোহীদের মধ্যে মাত্র ছয়জনের বেঁচে থাকার খবর পাওয়া গেছে।

স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম মি ওরিয়েন্ট জানিয়েছে, মঙ্গলবার বিকাল পৌনে ৭টায় কোপা সুদামেরিকানা টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলার সময়সূচি নির্ধারিত ছিল।

এতে কলম্বিয়ার অ্যাটলেটিকো ন্যাশনালের বিপক্ষে ব্রাজিলের শ্যাপেকোন্স ক্লাবের মুখোমুখি হওয়ার কথা ছিল।

এ উপলক্ষে সোমবার সন্ধ্যা ৬টা ১৮ মিনিটে বলিভিয়ার সান্তা ক্রুজ ডি লা সিয়েরা বিমানবন্দর থেকে লামিয়া এয়ারলাইনের আরজে-৮৫ বিমানটি মোট ৮১ জন আরোহী নিয়ে কলম্বিয়ার জোসে মারিয়া করডোভা বিমানবন্দরের পথে রওনা করে বিমানটি।

কিন্তু উড্ডয়নরত অবস্থায় জ্বালানি ফুরিয়ে গেলে লা ইউনিয়ন শহরের কেরো গরডো এলাকায় বিমানটি বিধ্বস্ত হয় বলে ওরিয়েন্টের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

এদিকে বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় দক্ষিণ আমেরিকান ফুটবল ফেডারেশন কনমেবল এক ঘোষণায় কোপা সুদামেরিকানা টুর্নামেন্ট স্থগিত করার কথা জানিয়েছে।