মেইন ম্যেনু

বিশ্বকাপে আবারো ভারতের কাছে পাকিস্তানের হার

বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে জয় অধরাই থেকে গেল পাকিস্তানের। টিকে থাকলো না ইডেন গার্ডেনে সীমিত ওভার ম্যাচে অজয় থাকার রেকর্ডটাও।ব্যাটিং ব্যর্থতায় পাকিস্তানকে হারতে হলো ৬ উইকেটে। দুই ম্যাচে ভারতের এটা প্রথম জয়।দুই ম্যাচে এক জয় পাকিস্তানেরও।

বিশ্বকাপ সুপার টেনের ‘বি’ গ্রুপের এ ম্যাচটি শুরু হওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশ সময় রাত আটটায়। কিন্তু কলকাতায় বিকালে বৃষ্টি হওয়ার কারণে আউট ফিল্ড ভিজে থাকায় খেলা শুরু হতে পারেনি নির্দিষ্ট সময়ে। খেলা শুরু হয় বাংলাদেশ সময় রাত নয়টায়।সময় নস্ট হওয়ায় ম্যাচের পরিধিও কমিয়ে আনা হয়। ২০ ওভারের পরিবর্তে ম্যাচ হয় ১৮ ওভারে।

এই ১৮ ওভারে পাকিস্তানের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ১১৮। জবাবে ১৫.৫ ওভারে ৬ উইকেট হাতে রেখে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় ভারত।

ভারতের সামনে মামুলি ১১৯ রানের টার্গেট। প্রথম ম্যাচে হেরে যাওয়ায় এদিন কিছুটা চাপ ছিল ভারতীয় ব্যাটিংয়ের উপর। সেই চাপের প্রতিফলন দেখা গেল শুরুতে। রান তুলতে গিয়ে ঘাম ঝরিয়েও ব্যর্থ রোহিত শর্মা (১০) ধাওয়ান (৬), সুরেশ রায়না (০)।

২৩ রানে হারাতে হয়েছে ৩ উইকেট, ৪.৩ ওভারে। সামি নেন ২ উইকেট, অন্যটি আমির। তবে সামি-আমিরের এ ধাক্কা সামলান বিরাট কোহলি ও যুবরাজ। বিপদ কাটিয়ে এ জুটি দলকে নিয়ে যান অনেক দুরে। ৬১ রানের জুটি গড়ে ব্যক্তিগত ২৪ রানে ফিরে যান যুবরাজ। তখন ভারতের দরকার ৩৫ রান ৩৬ বলে।

অধিনায়ক ধোনিকে নিয়ে এই কাজটুকু শেষ করেন বিরাট কোহলি। ৩৭ বলে ৫৫ রানে অপরাজিত থাকেন কোহলি।

বাংলাদেশের বিপক্ষে খুব বীরত্ব দেখিয়েছিলেন পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানরা। কিন্তু ভারতের বিপক্ষে ইডেনের ব্যাটিং ট্রাকে সেই বীরত্বের ছিঁটেফোঁটাও দেখা গেল না। ১০৮ বলের মধ্যে ৪৯টিই ডট বল! টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামা পাকিস্তানের সংগ্রহ ১৮ ওভারে ৫ উইকেটে মাত্র ১১৮ ।

বাংলাদেশের বিপক্ষে উড়ন্ত সূচনা করলেও এদিন শুরুতে অতি রক্ষণাত্মক ছিলেন দুই ওপেনার শারজিল খান ও আহমেদ শেহজাদ। প্রথম ৪ ওভারে আসলো ১৯ রান।এরপর প্রথম পাওয়ার প্লেতে (৫ ওভার) মাত্র ২৫ রান। আর ৫০ রান পূরণ হয় ৯.৩ ওভারে।

২৪ বলে ১৭ রানের বিরক্তিকর ইনিংস খেলে শারজিল খান ফিরে গেলে রানের গতি বাড়াতে ব্যাট করতে নামেন শহিদ আাফ্রিদি। কিন্তু তাতে কাজের কাজি কিছুই হয়নি। তাকে ফিরতে হয় ৮ রানে, ১৪ বলে।

উমর আকমল ও শোয়েব মালিক রানের গতি বাড়াতে চেষ্টা করেন।৪১ রান যোগ করেন তারা। আকমল ১৬ বলে ২২ ও মালিক ১৪ বলে ২৪ রান করেন।পাকিস্তান থেমে যায় মাত্র ১১৮ রানে। ভারতের পক্ষে অশ্বিন ছাড়া উইকেট পেয়েছেন সাবাই।