মেইন ম্যেনু

ভারতের বিহারে দিনে রান্না নিষিদ্ধ

ভারতে দাবদাহের কারণে চলতি মাসে তিন শতাধিক লোকের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে দুর্ঘটনাক্রমে অগ্নিকাণ্ডে নিহত হয়েছে ৮০ জন। এই শুষ্ক মৌসুমে অগ্নিকাণ্ড এড়াতে বিহার রাজ্যে দিনের বেলা রান্না নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

গত সপ্তাহে বিহারের আওরঙ্গাবাদে রান্নার সময় দুর্ঘটনাক্রমে একটি বাড়িতে অগ্নিকাণ্ড ঘটে। প্রচণ্ড গরম, শুষ্ক আবহাওয়া ও বাতাসের কারণে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এতে ১০ শিশুসহ ৭৯ জন নিহত হয়। এ ঘটনার পর কর্তৃপক্ষ রাজ্যে সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত রান্নাবান্না নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। বাসিন্দাদের রাতেই সব রান্নাবান্না শেষ করে রাখতে বলা হয়েছে। এ ছাড়া অগ্নিকাণ্ড এড়াতে পূজার সময়ও আগুন জ্বালাতে নিষেধ করা হয়েছে। এ আদেশ অমান্য করলে এক বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হবে বলে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

রাজ্যের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা ভায়াস বলেছেন, ‘আমরা বিহারে আগুন মৌসুম ঘোষণা করেছি। প্রবল পশ্চিমা বাতাস আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে সাহায্য করে এবং এতে ক্ষয়ক্ষতির মাত্রাও বেড়ে যায়।’

প্রসঙ্গত, চলতি মাসে প্রচণ্ড দাবদাহের কারণে ভারতের কয়েকটি রাজ্যে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। সাধারণত মে মাসে দেশটিতে তাপমাত্রার পরিমাণ বৃদ্ধি পায়। কিন্তু এবার এক মাস আগেই তাপমাত্রা ৪৪ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড ছাড়িয়ে গেছে। হিটস্ট্রোকের কারণে দেশটিতে গত এক মাসে কমপক্ষে ৩০০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ওডিশায় ১১০ জন, তেলেঙ্গানায় ১৩৭ জন ও অন্ধ্র প্রদেশে ৪৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।



« (পূর্বের সংবাদ)