মেইন ম্যেনু

সরকারকে বিএনপি

ভারতের সঙ্গে চুক্তির বিষয়বস্তু প্রকাশ করুন

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরে সরকারের সঙ্গে যেসব চুক্তি হয়েছে তা প্রাকশ করার জন্য ক্ষমতাসীনদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে বিএনপি।

নরেন্দ্র মোদির সফরে সম্পাদিত চুক্তির বিষয়ে বিএনপির প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে দলটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন এ আহ্বান জানান।

মঙ্গলবার দুপুরে নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে রিপন বলেন, ‘বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে ভারত সরকারের যেসব চুক্তি হয়েছে তা সম্পর্কে বিএনপি এবং দেশের জনগণ কিছুই জানে না। তাই সরকারের কাছে আমাদের আহ্বান চুক্তির বিষয়গুলো প্রাকাশ করুন। কারণ এ বিষয়ে স্বচ্ছতা থাকা খুবই প্রয়োজন।’

মোদির বাংলাদেশ সফরকে বিএনপি কিভাবে মূল্যায়ন করছে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘মোদির সফরকে আগেই আমরা স্বাগত জানিয়েছিলাম। তার এ সফরের মাধ্যমে দু’দেশের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরো দৃঢ় হবে।’

মোদির সফর ব্যর্থ নাকি সফলভাবে দেখছেন এর জবাবে রিপন বলেন, ‘চুক্তির বিষয়বস্তুগুলো প্রকাশ হলে তবেই এ বিষয়ে কথা বলতে পারবো, তার আগে এ বিষয়ে আমরা কোনো মন্তব্য করতে চাই না।’

তিস্তা চুক্তি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘তিস্তা চুক্তি না হওয়ায় জাতি হিসেবে আমরা হতাশ হয়েছি। মূলত সরকারের ব্যর্থতার করণেই এ চুক্তি হয়নি।’

মৎস্যভবনের সামনে নাশকতার ঘটনায় বিএনপির শীর্ষ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেয়া হয়েছে উল্লেখ করে দলের এ নেতা বলেন, ‘নাশকতার ব্যাপারে সুষ্ঠু তদন্ত হলে আমাদের কোনো নেতাই অভিযুক্ত হবেন না। কিন্তু আজ্ঞাবহ প্রশাসন দিয়ে যদি নির্যাতন চালানো হয় তাহলে আমাদের আর কিছুই করার নেই।’

এসময় তিনি রমজানের আগেই বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ সব শীর্ষ নেতাকর্মীদের মুক্তি দিয়ে দেশে গণতান্ত্রিক পরিবেশ সৃষ্টির জন্যও সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে সরকার যে জিরো টলারেন্স চালু করেছে সে প্রসঙ্গে রিপন বলেন, ‘সন্ত্রাসীদের বিরদ্ধে জিরো টলারেন্স বিএনপিও বিশ্বাস করে। কিন্তু এ অস্ত্র যেন বিএনপির ওপর ব্যবহার করা না হয় সে বিষয়ে সরকারকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানাই।’

বিএনপি যে কোনো ইস্যু নিয়ে সরাকারে সঙ্গে আলোচনায় বসতে প্রস্তুত আছে বলেও জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নাজিমুদ্দিন আলম, যুব বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সহ-তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, সহ-দপ্তর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহিন প্রমুখ।