মেইন ম্যেনু

ভারতে শিশুর মাথাবিহীন দেহ উদ্ধার, নরবলির অভিযোগ

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদে এবার নরবলির অভিযোগ উঠেছে। বাড়ির কাছাকাছি পাওয়া গেছে চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রের মাথাবিহীন দেহ।

শনিবার থেকে নিখোঁজ ছিল দশ বছরের সুভাষ। তবে সুভাষের কাটা মস্তকের সন্ধান এখনও পায়নি পুলিশ। সত্যিই নরবলি নাকি খুনের পিছনে রয়েছে অন্য কোনো রহস্য। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ২৪ঘণ্টা তাদের এক প্রতিবেদনে এমন তথ্যই জানিয়েছে।

দশ বছরের শিশু সুভাষ মণ্ডল মুর্শিদাবাদের নিচুতলার বাসিন্দা। কয়েকদিন ধরেই সুভাষ পূজোর আয়োজনকে কেন্দ্র করে ব্যস্ত ছিল। রহস্যজনকভাবে শনিবার সকাল থেকে নিখোঁজ হয়ে যায় সে। পরদিন রোববার বাড়ির কাছেই কলাবাগান থেকে উদ্ধার হয় সুভাষের মুণ্ডহীন দেহ।

২৪ ঘণ্টার প্রতিবেদন থেকে সুভাষের পরিবারের বক্তব্য সম্পর্কে জানা যায়, মৃতদেহে আর কোথাও, কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ধারালো অস্ত্রের কোপে আলাদা করে দেওয়া হয় মাথা। এর থেকেই তাদের সন্দেহ নরবলির ঘটনা হতে পারে এটি।

গ্রামে বেশকিছুটা দূরে রয়েছে একটি কালীমন্দির। সেখানেও খোঁজ চলে। তবে নরবলির স্বপক্ষে এখনও কোনো প্রমাণ হাতে আসেনি বলে দাবি পুলিশের।

প্রশ্ন উঠছে, পারিবারিক শত্রুতা থেকেই কি এই নৃশংস খুন? একটি ১০ বছরের শিশুর ওপর কার এত রাগ? নাকি সত্যিই এটি নরবলির ঘটনা?

খুনের উদ্দেশ্য, আপাতত এই সূত্রের খোঁজে পুলিশ। তাদের আশা, ওই সূত্র হাতে এলেই খুলে যাবে হত্যারহস্যের জট।