মেইন ম্যেনু

ভাড়াটিয়ার নিবন্ধন ফরম জমা না দিলে খেসারত দিতে হবে বাড়িওয়ালাকে

কোন বাড়িওয়ালা যদি ভাড়াটিয়ার নিবন্ধন ফরম জমা দিতে ব্যর্থ হয় এবং ওই বাড়িতে যদি কোন অপরাধ হয় তাহলে এর দায়-দায়িত্ব বাড়িওয়ালাকে নিতে হবে।

সোমবার দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার (ডিএমপি) আছাদুজ্জামান মিয়া এ কথা বলেন। আগামী ১৫ মার্চের মধ্যে এই ফরম জমা দিতে হবে।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, ভাড়াটিয়ার তথ্য জমা দেয়ার দায়িত্ব বাড়িওয়ালার। যদি কোন ভাড়াটিয়া ইচ্ছাকৃতভাবে তথ্য না দেয়, কিংবা তথ্য গোপন করে আর যদি ওই বাড়িতে কোন জঙ্গি কার্যক্রম কিংবা অপরাধ সংগঠিত হয়, এর দায়িত্ব বাড়িওয়ালাকেই নিতে হবে। বাড়িওয়ালার বিরুদ্ধে ফৌজদারি অপরাধের দায়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আছাদুজ্জামান বলেন, নগরবাসীর নিরাপত্তার জন্যই তথ্য ভাণ্ডার তৈরি করা হচ্ছে। এতে কেউ হয়রানির শিকার হবে না। পাড়া-মহল্লা ভিত্তিক এই তথ্য সংগ্রহ করা হবে। তথ্যের হার্ড কপি ও সফট কপি দুটিই সংরক্ষণ করা হবে।

নগরবাসীকে উদ্দেশ্য করে ডিএমপি কমিশনার বলেন, বিট পুলিশের সদস্যরা বাড়িতে গিয়ে ফরম দিয়ে আসবে। যদি কোন কারণে আপনারা ফরম না পান তাহলে সংশ্লিষ্ট থানায় যোগাযোগ করে ফরম সংগ্রহ করেন। যদি কোন ভাড়াটিয়া বাড়ি ছেড়ে চলে যায় তাৎক্ষণিকভাবে তা পুলিশকে জানান। নতুন ভাড়াটিয়া আসলেও জানাতে হবে।

তথ্য সংগ্রহের কাজ করবে বিট পুলিশেরা। বর্তমানে রাজধানীর প্রতিটি থানায় ৩ থেকে ৯টি বিট কাজ করছে। রাজধানীতে সর্বমোট ২৮৭টি বিট রয়েছে। প্রতিটি বিটের দায়িত্বে থাকবেন পুলিশের একজন উপ-পরিদর্শক (এসআই)। আশা করছি, বিট পুলিশিংয়ের মাধ্যমে মানুষ ও পুলিশের মধ্যে সুসম্পর্ক গড়ে উঠবে।