মেইন ম্যেনু

ভায়োলিন বাজালেন গাজী রাকায়েত ও সাফা কবির!

গভীর মনোযোগ দিয়ে ভায়োলিন বাজাচ্ছেন গাজী রাকায়েত ও সাফা কবির। সম্পর্কে নানা-নাতনী তারা। সুরের মূর্ছনায় মুগ্ধ দু’জন। গাজী রাকায়েত তার নিজের সুরের বিদ্যা নাতনী সাফা কবিরকে দেয়ার চেষ্টা করছেন। এমন দৃশ্য এবার ঈদে ‘ভায়োলিন’ শিরোনামের নাটকে দেখা যাবে।

সৈয়দ ইকবালের রচনা এবং তপু খানের পরিচালনায় এতে গাজী রাকায়েত ও সাফা কবির ছাড়াও আরো অভিনয় করেছেন শাকিল আহমেদ, নওশাবা, আজাদসহ অনেকে। সম্প্রতি গাজীপুর, মাওনা, মুন্সিগঞ্জ, সাভার ও ঢাকাসহ মনোরম সব লোকেশনে নাটকটির দৃশ্যধারণ সম্পন্ন হয়। ঈদের দিন রাত ৭টা ৩৫ মিনিটে দেশটিভিতে প্রচার হবে।

নাটকের গল্পে দেখা যাবে, বাবা রিফাত সাহেব (শাকিল আহমেদ) ও মেয়ে আইরিনের সংসার (সাফা কবির)। ঘটনাক্রমে একদিন আইরিন পাশের একটি বাড়িতে ভায়োলিন বাজানো এক বৃদ্ধকে দেখতে পান। সুরের প্রতি ভালোবাসার কারনে আইরিন ছুঁটে যায় ঐ বৃদ্ধ লোকটির কাছে এবং ভায়োলিন বাজানো শেখার বায়না ধরে।

একদিনের আলাপচারিতায় মেয়েটি তার মরে যাওয়া মাকে (নওশাবা) ভায়োলিনের সুরে সুরে আবিস্কার করে। যেকিনা ঐ বৃদ্ধ লোকটির মেয়েই ছিলো। কিন্তু তার বাবা তার কাছ থেকে এই সত্যটুকু লুকিয়ে রাখে অজানা কোনো কারনে। বাড়ি ফিরে এসে মেয়েটি তার বাবা, নানা এবং মায়ের ফেলে আসা একটি অধ্যায় সম্পর্কে জানতে পারে। যেটি ছিলো ভায়োলিনের সুরে গাঁথা এক ভালোবাসার গল্প।

নাটকটি প্রসঙ্গে গাজী রাকায়েত বলেন, ‘অনেক বছর পর তৃপ্ত হওয়ার মতো একটি গল্পে কাজ করলাম। সবচেয়ে মজা লেগেছে গল্পের বাঁকগুলো। ‘আমি-তুমি’ বলা ভালোবাসার বাইরের গল্প এটি। আর বাবা আর মেয়ের অদ্ভুদ সম্পর্কের গল্প ফুটে উঠেছে ‘ভায়োলিন’ নাটকটিতে। দর্শক ঈদে সত্যি অন্যরকম আনন্দ পাবেন নাটকটি দেখে।’