মেইন ম্যেনু

ভিয়েতনামে বন্দী গর্ভবতী হওয়ায় চার কারারক্ষী বরখাস্ত

ভিয়েতনামে মৃত্যুদণ্ডের অপেক্ষায় থাকা নারী বন্দী গর্ভবতী হওয়ায় দায়িত্বে অবহেলার কারণে চার কারারক্ষীকে বরখাস্ত করা হয়েছে। ভিয়েতনামের আইনানুযায়ী এখন ওই নারীর শিশু জন্ম হওয়ার পরে মৃত্যুদণ্ডের শাস্তি কমে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়ে যাবে।

ভিয়েতনামের গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এপি জানিয়েছে, নিগুয়ে থাই হুয়ে নামের ৪২ বছর বয়সী নারী ২০১২ সালে মাদক পাচারের দায়ে আটক হন এবং ওই অপরাধে ২০১৪ সালে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত হন ২০১৪ সালে। মৃত্যুদণ্ডের বিরুদ্ধে করা তার আপিল আদালতে খারিজ করে দেয়। জানা গেছে, কারাগারে গর্ভবতী হতে এক পুরুষ বন্দীকে ২ হাজার ৩০০ ডলার দিয়েছেন হুয়ে।

২৭ বছর বয়সী ওই পুরুষ বন্দী সিরিঞ্জে করে তাকে বীর্য গোপনে পাঠায় এবং সেটি ব্যবহার করে নিজেকে গর্ভবতী করেন হুয়ে। এর মাধ্যমেই ওই নারী গর্ভবতী হন এবং দুই মাসের মধ্যে সন্তানের জন্ম দেবেন। ভিয়েতনামের আইনানুযায়ী তিন বছরের কম বয়সী সন্তানের মা হওয়ায় তার মৃত্যুদণ্ড কমে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়ে যাবে।

ভিয়েতনামে নারী কারাবন্দীরা এই আইনের অপব্যবহার এর আগেও করেছে। ২০০৭ সালে ভিয়েতনামের হোয়া বিন প্রদেশে দুই কারারক্ষীকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছিল। তাদের অপরাধ ছিল এক মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত নারীকে এক পুরুষ কারাবন্দীর সঙ্গে সঙ্গমের মাধ্যমে গর্ভবতী হওয়ার সুযোগ করে দেয়া।