মেইন ম্যেনু

ভুরুঙ্গামারীতে স্ত্রীকে জিম্মি করে ৫ লক্ষ টাকার মালামাল লুট

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি : কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারীতে পূর্ব বিরোধের জের ধরে সন্ত্রাসীরা এক ব্যবসায়ীর স্ত্রীকে জিম্মি করে নগদ টাকাসহ ৫ লক্ষ টাকার মালামাল লুট করে নেয়। এ ঘটনায় ভুরুঙ্গামারী থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামীরা বাদিকে মামলা তুলে নেয়ার জন্য প্রাণনাশের হুমকী দিচ্ছে বলে অভিযোগ করা হয়।

মামলার বিবরণে জানা যায়, উপজেলার পাটেশ্বরী বাজার এলাকার কাপড় ব্যবসায়ী জাকির হোসেন ব্যাপারীর সাথে পার্শ্ববতী পাইকেরছড়া গ্রামের আজিজুল হকের পুত্র খয়বর হোসেন (৩৮) ও সোনাহাট ইউনিয়নের গণাইরকুটি গ্রামের মৃত: ফজল মোল্লাহর পুত্র পরান মোল্লাহ’র (৩৫) সাথে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে গত বুধবার বিকেলে ব্যবসায়ী জাকিরের অনুপস্থিতে খয়বর গং তার বাড়ীতে প্রবেশ করে স্ত্রী পারভীন বেগমকে অস্ত্রের মূখে জিম্মি করে। পরে তারা নগদ ২ লক্ষ ২০ হাজার টাকা, ল্যাপটপ, স্বর্ণের গহণা, দোকানে বিক্রির জন্য মজুদকৃত শাড়ী, লুঙ্গি, সার্ট পীচসহ প্রায় ৫ লক্ষ কুড়ি হাজার টাকার মালামাল লুট করে। সন্ত্রাসীরা যাবার সময় প্রধান গেটে তালা লাগিয়ে দেয়। এসময় পারভীন বেগমের চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা মালামাল নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে পুলিশের সহযোগিতায় তালা ভেঙে পারভীন বেগমকে উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় ব্যবসায়ী জাকির হোসেন ব্যাপারী খয়বর হোসেনসহ অজ্ঞাত ৫ জনের নাম উল্লেখ করে ভুরুঙ্গামারী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই জালাল উদ্দিন জানান, অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারে পুলিশ তৎপর। বাদিকে হামলাসহ প্রাণনাশের হুমকীর কথা অস্বীকার করে তিনি আরো জানান, আসামীদের অবস্থান জানা থাকলে বলুন। পুলিশ কোন ছাড় দিবে না। আমরা সাথে সাথে গ্রেপ্তার করবো।