মেইন ম্যেনু

ভুলে ভরা ঢাবির ‘গ’ ইউনিটের প্রশ্নপত্র

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে ব্যবসায়ে শিক্ষা অনুষদভুক্ত ‘গ’ ইউনিটের অধীনে প্রথম বর্ষ ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে একাধিক ভুল পাওয়া গেছে। একটি সেটে ১০০টি প্রশ্নের মধ্যে দেয়া হয়েছে ৯৯টি প্রশ্ন। এছাড়া অন্যান্য সেটগুলোতে প্রশ্নের সিরিয়াল নম্বরে ভুল রয়েছে।

প্রশ্নপত্রের কয়েকটি সেট বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, একটি সেটে ফাইন্যান্স অংশে ৬ নম্বর প্রশ্নের পরে ৭ নম্বর নেই। সেখানে ৮ নম্বর থেকে বাকী প্রশ্ন দেয়া আছে। এছাড়া আরেকটি সেটের অ্যাকাউন্টিং প্রশ্নের ১৮ নম্বর প্রশ্নটির অপশনে ইংরেজি ভার্সনে একটি এবং বাংলায় ভার্সনে আরেকটি সংখ্যা দেয়া আছে। এ প্রশ্নের উত্তর নির্বাচনেও বিভ্রান্তিতে পড়তে হয়েছে শিক্ষার্থীদের।

আরেকটি সেটে ইংরেজি অংশে শুন্যস্থান পূরণ অংশে ৬ থেকে ১২ পর্যন্ত পূরণ করার কথা বলা থাকলেও প্রশ্নে ছিল ৬ থেকে ১১ পর্যন্ত। একই সেটে অ্যাপ্রোপ্রিয়েট প্রিপোজিশান অংশে ১৩ থেকে ১৭ নম্বর প্রশ্নের উত্তর দেয়ার কথা বলা থাকলেও প্রশ্ন শুরু হয়েছে ১২ নম্বর থেকে। এছাড়াও প্রশ্নপত্রে বাংলা টাইপিংও ছিল প্রশ্নবিদ্ধ। একই প্রশ্ন লেখা হয়েছে Sutonny MJ ও Vrinda উভয় ফন্টে। আরেক সেটের মার্কেটিং অংশের প্রশ্নগুলোতে বাংলা বানানে ব্যাপক ভুল করা হয়েছে।

du220160930130027

এ বিষয়ে ‘গ’ ইউনিট ভর্তি পরীক্ষা কমিটির আহ্বায়ক ও ব্যবসায়ে শিক্ষা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম বলেন, যাদের প্রশ্নপত্রে একটি প্রশ্ন কম ছিল তাদের এবং যাদের সেটে প্রশ্ন ছিল কিন্তু শিক্ষার্থীরা প্রশ্নের উত্তর ভুল করেছে তাদের সবাইকে নম্বর দিয়ে দেওয়া হবে। এ বিষয়ে হলে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এদিকে প্রশ্নের এসব ভুল নিয়ে ভর্তিচ্ছুদের মাঝে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। সমলোচনার ঝড় বইছে প্রক্টর অফিসে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মধ্যেও।

du320160930130024

কয়েকজন শিক্ষক বলেন, এর ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের মর্যাদা ও গ্রহণযোগ্যতা ক্ষুণ্ণ হয়েছে। দায়সারা কাজের খেসারত দিতে হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়কে। একজন শিক্ষক ব্যবসায়ে শিক্ষা অনুষদের ডিনের পদত্যাগও দাবি করেন প্রক্টর রুমে।

এ বিষয়ে রাজধানীর নটরডেম কলেজের শিক্ষার্থী প্রান্ত বড়ুয়া বলেন, ভর্তি পরীক্ষায় এক ঘণ্টার মধ্যে প্রশ্নপত্রের ভুল ঠিক করে উত্তর দেওয়া কঠিন। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের উচিত ছিল প্রশ্নের ভুল আছে কিনা তা ক্ষতিয়ে দেখা।

du120160930125726

এদিকে প্রশ্নের এতো ভুল দেখে পরীক্ষার হল পরিদর্শকগণ শিক্ষার্থীদের হেডিংয়ের নির্দেশনা ফলো না করারও নির্দেশনা দেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর অধ্যাপক ড. আমজাদ আলী বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশ্নে এ ধরণের ভুল অনাকাঙ্ক্ষিত। আশা করি সামনে এ ধরণের ভুল আর হবে না। এ ব্যপারে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সচেতন থাকবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, সুষ্ঠুভাবেই পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। ভুলের জন্য সবাইকে নম্বর দেয়া হবে। বিষয়টি পরীক্ষার হলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।খবর জাগো নিউজের।