মেইন ম্যেনু

ভূমিকম্পের পূর্বাভাস দেবে মুরগী!

বিধ্বংসী ভূমিকম্পের পূর্বাভাস দিতে আর উন্নত প্রযুক্তির উপর ততোটা আস্থা রাখতে পারছেন না চীনা বিজ্ঞানীরা। তারা প্রকৃতিতেই ফিরছেন। এ জন্য বেছে নিয়েছেন প্রকৃতির খাঁটি সন্তান পশুপাখিদের।

জিয়াংসু প্রদেশের রাজধানী নানজিং এর ভূমিকম্প বিজ্ঞানীরা চিড়িয়াখানা ও সাফারি পার্ক মিলিয়ে সাতটি অঞ্চল বেছে নিয়েছে। এসব অঞ্চলের পশুপাখিদের ভূমিকম্প পূর্ববর্তী আচরণ পর্যবেক্ষণ করা হবে।

মূলত পশুপাখিদের আচরণের আকস্মিক পরিবর্তন বিশেষ করে ভীতি পর্যবেক্ষণ করা হবে। ইয়োহুয়াতাই জেলার এমন একটি পার্কের দিকে আপাতত তীক্ষ্ণ নজর রাখা হচ্ছে যেখানে, ২ হাজার মুরগী, ২০০ শুকর, ২ বর্গকিলোমিটার পুকুরে বিপুল মাছ রয়েছে। এখানে ক্যামেরা বসিয়ে দিনে অন্তত দুই বার পশুপাখিদের আচরণ পর্যবেক্ষণ করা হয়।

পশুপাখিরা প্রাকৃতিক দুর্যোগের আগাম আভাস পায় এটি একটি স্বীকৃত ধারণা। এই ধারণার সপক্ষে বহু প্রমাণও রয়েছে। চীনা বিজ্ঞানীরা এই বহু প্রাচীন ও মোক্ষম ধারণাটাই কাজে লাগাতে চাইছেন।

এ ব্যাপারে নানজিং ভূমিকম্প অধিদপ্তরের প্রধান ঝাও বিং বলেন, শুধু একটামাত্র মুরগীর আকস্মিক আচরণ পরিবর্তনে কিন্তু দুর্যোগের আভাস সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে না। এর জন্য নিশ্চিত হতে রীতিমতো একটি গ্রুপের উপর নজর রাখতে হবে। এমনকি ক্রসচেক করে যাচাই করতে হবে।